ভোপাল : কথায় আছে প্রতিভা চাপা থাকতে পারে, তাই বলে মরে যায় না। কার্যক্ষেত্রেও দেখা গেল তাই। ৮০ বছরের এক আদিবাসী মহিলার আঁকা ছবি গেল ইতালির প্রদর্শনীতে। যা অবাক করে দিয়েছে বহু মানুষকে। ওই আদিবাসী মহিলার নাম যোধাইয়া বাই বৈগা। তাঁর বাড়ি মধ্যপ্রদেশের লোরহা গ্রামে।

কীভাবে আঁকার শুরু ? সে প্রসঙ্গে যোধাইয়া জানিয়েছেন, চল্লিশ বছর আগে স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে একা হয়ে পড়েন তিনি। একাকীত্ব কাটাতেই হাতে তুলে নেন রঙ, তুলি। তারপর অনেক সময় পেরিয়ে গেছে আজ তাঁর আঁকা ছবি ইতালির মিলানে একটি প্রদর্শনীতে প্রদর্শিত হচ্ছে।

নিজের ছবি আঁকা প্রসঙ্গে যোধাইয়া বাই বৈগা জানান, ” আমি যা দেখি, তারই ছবি আঁকি। আঁকা ছাড়া এখন আমি কিছুই করি না।” আঁকার জন্য যে তিনি দেশের বহু জায়গায় ঘুরেছেন সে কথাও জানিয়েছেন তিনি। নিজের স্বীকৃতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমি আনন্দিত যে আমার চিত্রকর্ম আন্তর্জাতিক মঞ্চে স্বীকৃতি পেয়েছে।”

তাঁর এই সাফল্যে হয়তো সবথেকে খুশি হয়েছেন তাঁর শিক্ষক আশিষ স্বামী। তিনি জানিয়েছেন, “আমি তাঁর এই সাফল্যের জন্য সত্যিই খুশি, তবে আমার মনে হয় যোধাইয়ার আরও অনেক কিছু অর্জন করার রয়েছে।” তিনি জানিয়েছেন, ২০০৮ সাল থেকে তাঁদের আঁকার সেন্টারে আসেন যোধাইয়া। তিনি মনে করেন, যোধাইয়ার এই সাফল্য আদিবাসী সম্প্রদায়ের জন্যও গুরুত্বপূর্ন। তাঁর মনে হয় যোধাইয়ার এই সাফল্য তাঁদের সম্প্রদায়ের অন্যান্যদেরকেও এমন নানান কাজে উৎসাহিত করবে।

যোধাইয়ার এই সাফল্যকে কুর্নিশ করছে সারা দেশ। নেটিজেনদের দৌলতে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছেন যোধাইয়া ও তাঁর আঁকা। নিজের রঙ তুলির জোরে সাফল্যের চূড়ায় উঠে ফের তিনি প্রমাণ করেছেন বয়স কেবল সংখ্যা মাত্র।