ভোপাল: আগেও দল ছেড়েছেন বেশ কয়েকজন। এবার ফের একধাক্কায় অনেক সংখ্যালঘু বিজেপি ছাড়লেন। ৮০ জন পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

সমস্যা যে শুধু শুরু হয়েছে সিএএ ঘিরে তা নয়, সূত্রের দাবি, মধ্যপ্রদেশে বিজেপির সংখ্যালঘু সেল বিব্রত লোকসভা নির্বাচন থেকেই। সেই সময় ভোপালে প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের প্রার্থীপদ নিয়ে অনেকেই অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন মধ্যপ্রদেশ বিজেপিতে। এবার তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সিএএ। সেই কোন্দল কয়েক মাসে বড়সড় আকার নিয়েছে।

জানা গিয়েছে, বিজেপির অন্দরে সিএএ ঘিরে কোন্দলের জেরে ইন্দোর বিজেপি থেকে পদত্যাগ করেছেন ৮০ জন সংখ্যালঘু সেলের নেতা। দলত্যাগী সমস্ত নেতাদের দাবি, হিন্দু-মুসলিম ভেদাভেদ না করে সরকারের উচিত বেকারত্ব ঘোচানোর দিকে নজর দেওয়া।

মধ্যপ্রদেশ বিজেপির তরফে ওয়াসিম ইকবালের দাবি, নিজেদের সম্প্রদায়ের মানুষের কাছে মুখ দেখাতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছেন তাঁরা। তিল তালাক থেকে শুরু করে অযোধ্যা ইস্যু ঘিরে যে বিজেপির অন্দরেই ক্ষোভ তৈরি হয়েছে , তাও জানান ওয়াসিম ইকবাল।

ইন্দোরের সংখ্যালঘু সেলের দাবি, বিজেপির অন্দরে রয়েছে সিএএ ঘিরো ক্ষোভ। তিনি জানান, দেশের ১৫ শতাংশ মানুষের জন্য এখন দেশের ৮৫ শতাংশ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দেওয়া হচ্ছে এনআরসি ও সিএএ করে। দেশের ৩১ শতাংশ মানুষ সমস্ত কাগজপত্র দেখাবেন এমনটা আশাই করা যায় না।