নয়াদিল্লি: বছর শুরু হয়েছে এখনও চার মাসও হয়নি। দিনের সংখ্যা পেরিয়েছে ১০০ দিনের একটু বেশি। এরই মধ্যে ভারতীয় সেনা জওয়ানদের হাতে প্রাণ গিয়েছে ৬৬ জন জঙ্গির।

কেন্দ্রীয় সরকারের শীর্ষ স্তরের সূত্র মারফৎ এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে। সেই তথ্যের উপরে ভিত্তি করে এই সংবাদ পরিবেশন করেছে সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে টিভি।

জম্মু-কাশ্মীরের স্থানীয় প্রশাসনিক কর্তা এবং নানাবিধ সেনা জওয়ানদের সঙ্গেও কথা বলে ওই প্রতিবেদন লেখা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে। সেই তথ্য বলছে জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত ৬৬ জন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে ভারতীয় সেনার গুলিতে। যার মধ্যে ২৭ জন জৈইশ জঙ্গি রয়েছে।

এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, পুলওয়ামা কাণ্ডের মাস দেড়েকের মধ্যেই মৃত্যু হয়েছে ওই হামলায় জড়িত সকল জঙ্গির। ওই সময়ের মধ্যেই ভারতীয় সেনার সঙ্গে জঙ্গিদের ২৬ বার সংঘর্ষ হয়৷ সেনা পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার ১০০ ঘন্টার মধ্যে মাস্টার মাইন্ড কামরানকে খতম করে৷ ত্রালের সংঘর্ষে আরও এক মাস্টার মাইন্ড মুদস্সিরকে খতম করা হয়৷

জঙ্গি দমনের বিষয়ে গোটা বিশ্ব ভারতের পাশে ছিল৷ মাসুদ আজহারকে বিশ্ব জঙ্গি ঘোষণা করতে এবার আমেরিকা, ফ্রান্স এবং ব্রিটেন প্রস্তাব আনে, তবে চিন ছাড়া এই প্রস্তাবে প্রত্যেকটি দেশ সমর্থন করে৷ চিনের ভেটো প্রয়োগে ফের একবার মাসুদ আজহার গ্লোবাল টেররিস্ট আখ্যা থেকে বেঁচে গেল৷

জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে ভারতের ক্ষতির পরিমাণও কম নয়৷ সেই এক মাসের মধ্যে পুলওয়ামার ঘটনার পর ১৬ জন জওয়ান শহিদ হন৷ একাধিক জওয়ান আহতও হন৷ পুলওয়ামা হামলার পর থেকে সীমান্তে ভারতীয় সেনা চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করে৷ উপত্যকায় অস্থিরতার জেরে বাড়তি সুরক্ষা ব্যবস্থা নেয় ভারতীয় সেনা৷ ভারতীয় সেনা পাকিস্তানের মোকাবিলা করতে সব দিক থেকে প্রস্তুতি নেয়৷