নয়াদিল্লি: ১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় বাজেট ৷ তার আগে এক আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার রিপোর্ট অস্বস্তি বাড়াল মোদী সরকারের৷ কারণ আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অক্সফ্যাম ভারতের চরম অসাম্যের চিত্র তুলে ধরেছে ৷ যাতে দেখা গিয়েছে দেশের উপরের এক শতাংশের হাতে রয়েছে ৯৫.৩ কোটি লোকের সম্পত্তির চারগুণ সম্পদ৷

শুধু তাই নয় অক্সফ্যামের ‘টাইম টু কেয়ার’ শীর্ষক এই রিপোর্টটিতে এমন একটি তথ্য দেওয়া হয়েছে যা দেখে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের পক্ষে বাজেট তৈরির কাজটা আরও কঠিন করে দিয়েছে৷ কারণ রিপোর্ট অনুসারে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ২৪,৪২,২০০ কোটি টাকার কেন্দ্রীয় বাজেটের চেয়েও বেশি হচ্ছে দেশের ৬৩জন ধনকুবেরদের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৷

যার ফলে অক্সফ্যাম ইন্ডিয়ার সিইও অমিতাভ বেহরের বক্তব্য, এ দেশের ভঙ্গুর অর্থনীতি দেশের সাধারণ মানুষের বদলে ধনকুবের তথা বড় ব্যবসায়ীদেরই পকেট ভারী করছে ৷ তাঁর মতে, এই জন্যই সমাজে ধনকুবেরদের থাকা উচিত কি না, সে নিয়ে মানুষ প্রশ্ন করলে তখন অবাক হওয়ার কিছু নেই৷ সরকার ঠিকমতো নীতি গ্রহণ না করলে এই বৈষম্য দূর হবে না৷ তবে বিশ্বের খুব কম সরকারই আগ্রহী এই বৈষম্য দূর করার ব্যাপারে বলে তিনি মনে করেন৷

অক্সফ্যাম প্রতি বছরেই সুইৎজারল্যান্ডের দাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ঠিক আগেই দুনিয়া জুড়ে বিভিন্ন দেশে আয় বৈষম্য সংক্রান্ত রিপোর্ট প্রকাশ করে থাকে৷ যাতে এই বিষয়গুলি নিয়ে ওই বৈঠকে দেশ-বিদেশের মন্ত্রী, সচিব, শিল্পপতি, শিক্ষাবিদ, অর্থনীতিবিদেরা আলোচনা করতে পারেন। সোমবার থেকে দাভোসে শুরু হয়েছে এই বৈঠক ৷