রায়পুর: বিধানসভা ভোটের এখনও এক সপ্তাহ বাকি৷ মাওবাদী উপদ্রুত রাজ্য ছত্তিশগড়ে আত্মসমর্পণ করল ৬২ জন৷ এরা প্রত্যেকেই সিপিআই (মাওবাদী) সংগঠনের স্কোয়াড সদস্য৷ এদিকে ১২ নভেম্বর রাজ্যে বিধানসভা  ভোট৷ নির্বাচনে এই রাজ্যে নাশকতার আশঙ্কা তো থাকছেই, ইতিমধ্যে কয়েকটি জায়গাতে বিস্ফোরণও হয়েছে৷ মারা গিয়েছেন কয়েকজন৷ তারই মাঝে এত বড় সংখ্যায় মাওবাদীদের ধরা দেওয়া সরকারের কাছে স্বস্তিদায়ক৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এই ঘটনাকে বড় সাফল্য বলে অভিহিত করেছেন৷

আরও পড়ুন: অযোধ্যায় দাঁড়িয়ে বড় চমক দিলেন যোগী আদিত্যনাথ

জানা গিয়েছে, এই ৬২ জনের মধ্যে ৫৫ জন অস্ত্র সহ পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে৷ আগামী দিনে আরও মাওবাদী আত্মসমর্পণ করবে বলে পা বাড়িয়ে রেখেছে৷ এমনটাই জানিয়েছেন বস্তারের আইজি বিবেকানন্দ সিনহা৷ সংবাদসংস্থা পিটিআইকে ফোনে তিনি বলেন, ‘‘এটা নিঃসন্দেহে বড় সাফল্য৷ মাওবাদীদের মধ্যে এর একটা প্রভাব তো নিশ্চয়ই পড়বে৷ তাদের আত্মসমর্পণ করতে প্রভাবিত করতে পারে৷ এছাড়া আরও অনেকে পুলিশের কাছে ধরা দিতে প্রস্তুত৷’’

অপরদিকে এই খবর পাওয়া মাত্র সঙ্গে সঙ্গে ট্যুইট করে প্রতিক্রিয়া দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ লেখেন, ‘‘ছত্তিশগড়ে অস্ত্র ছেড়ে এত সংখ্যক মাওবাদীদের আত্মসমর্পণের খবরে খুশি৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, ডিজিপি ও পুলিশের কাছে এটা অনেক বড় সাফল্য৷ মাওবাদীদের অস্ত্র ত্যাগ করতে রাজ্য সরকার ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছে৷ সরকারের আত্মসমর্পণ ও পুনর্বাসন পলিসির জেরে এই সাফল্য৷ তার জেরেই মাওবাদীরা হিংসার পথ ছেড়ে সমাজের মূলস্ত্রোতে ফিরে আসছে৷’’

আরও পড়ুন: মোদীর নেতৃত্বে এগোচ্ছে ভারত, মিলল আন্তর্জাতিক প্রংশসা

এদিকে বিধানসভা ভোটের আগে মাওবাদীদের আত্মসমর্পণ রাজ্য সরকারকে যারপরনাই স্বস্তি দিয়েছে৷ আগামী ১২ নভেম্বর রাজ্যে প্রথম দফার ভোট৷ ওই দিন ১৮টি আসনে নির্বাচন হবে৷ প্রথমদফার বেশিরভাগ আসন পড়েছে মাও অধ্যুষিত বস্তার এলাকায়৷ যেখানে ভোট বয়কটের ডাক দিয়ে রেখেছে তারা৷ মাওবাদীরা ভোট বানচাল করতে পারে এমন আশঙ্কা ঘিরে রেখেছিল পুলিশ প্রশাসনকে৷ সেই জায়গা থেকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দিল পুলিশকে৷