জাকার্তা: ফের ভূমিকম্প ইন্দোনেশিয়ায়। এবার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ইন্দোনেশিয়ার পর্যটকপ্রিয় বালি দ্বীপ। রবিবারের পর মঙ্গলবারের বড়সড় কম্পনেও সুনামির কোনও সতর্কবার্তা জারি হয়নি। মঙ্গলবার সকালের এই কম্পনের মাত্রা ছিল ৬.০। স্থানীয় সময় সকাল ৭ টা নাগাদ এই কম্পন অনুভূত হয়। জানা যায়, উৎসস্থল ভূপৃষ্ঠ থেকে ৬৮ কিলোমিটার গভীরে।

এইদিনের ভূমিকম্পের ফলে কাছাকাছি বহু জায়গায় আফটার শক বুঝতে পারেন স্থানীয়রা। মূলত বালি দ্বীপের দক্ষিনাংশে কম্পন অনুভূত হয় বলে জানা গিয়েছে।

ঘটনার কিছুক্ষনের মধ্যেই স্যোশাল মিডিয়ায় দেখা যায়, নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে বালি দ্বীপের একাধিক হোটেল থেকে পর্যটকদের বাইরে বের করে দেওয়া হচ্ছে। সেখানে উপস্থিত স্থানীয় বাসিন্দারা নেমে আতঙ্কে রাস্তায় বেড়িয়ে আসে। এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের বা ক্ষয়ক্ষতির কোনও খবর নেই।

রবিবার মালাকু দ্বীপে ৭.৩ মাত্রার কম্পন হয়েছিল। প্রশান্ত মহাসাগরের ‘রিং অফ ফায়ার’-এর মাঝে অবস্থিত এই অঞ্চল, তাই ইন্দোনেশিয়ায় বারবারই হয় ভূমিকম্প। গত বছর ইন্দোনেশিয়ার পালুতে সুলায়েসি আইল্যান্ডে ৭.৫ মাত্রার কম্পন হয়, সঙ্গে সুনামি। সেখানে ২২০০ মানুষের মৃত্যু হয়। অনেকেই নিখোঁজ হয়ে যান।

তবে সবথেকে ভয়ঙ্কর কম্পন হয়েছিল ২০০৪-এর ২৬ ডিসেম্বর। কম্পনের মাত্রা ছিল ৯.১। সুমাত্রা উপকূলের সেই কম্পনে সুনামিতে ২ লক্ষ ২০,০০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। এর মধ্যে শুধু ইন্দোনেশিয়াতেই মৃত্যু হয় ১ লক্ষ ৭০,০০০ মানুষের।