মানিলা: একদিকে করোনা আতঙ্কে কাঁপছে বিভিন্ন দেশ। তার উপর গোদের ওপর বিষফোঁড়া হয়ে দেখা দিল ভূমিকম্প। ৬.০ রিখটার স্কেলের মাত্রায় কেঁপে উঠল ফিলিপাইন্স। তথ্য জানাচ্ছে, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় অনুযায়ী রাত ১১ টা ৩৮ মিনিটে প্রবল ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ফিলিপাইন্সের সারানগনি এলাকা।

সারানগনি, মাসিম থেকে ৪৬ কিমি দূরে ভূপৃষ্ঠ থেকে ৪৯ কিমি গভীরে এই ভূমিকম্পের উৎসস্থল ছিল বলে জানিয়েছে, ফিলিপাইন্স ইন্সটিটিউট অফ ভলক্যানালোজি।

জানানো হয়েছে, ঠিক যেখানে এই ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে তার থেকে মাত্র ৪৩ কিমি দূরেই রয়েছে বালুট নামে একটি আগ্নেয়গিরি। সেটির জন্য এই ভূমিকম্প কিনা তা দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

উল্লেখ্য বুধবারেই তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল রাশিয়ার কুরিল দ্বীপপুঞ্জ। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৭.৮। এমনকি ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছিল। তবে এর আগে এমন একাধিক ভূ-কম্পন দেখেছে রাশিয়াবাসী।

অন্যদিকে দু’দিন আগেই ইউরোপে আঘাত হানে ভূমিকম্প। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৫.৪। ক্রোয়েশিয়ায় হয় সেই কম্পন। তবে শুধু ক্রোয়েশিয়া না, সঙ্গে কেঁপে উঠল বসনিয়া অ্যান্ড হার্জেগোভিনা, হাঙ্গেরি, অস্ট্রিয়া এবং স্লোভেনিয়ার বেশ কিছু দেশ।এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ক্রোয়েশিয়ার রাজধানী জাগরেব থেকে ৫.৮ মাইল উত্তরে।

এ ভূ-কম্পনের ফলে ক্রোয়েশিয়ার বেশ কিছু স্থানে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ক্রোয়েশিয়ার বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। একই সাথে কিছু এলাকায় অগ্নিকাণ্ডের খবরও শোনা যায়।