নয়াদিল্লি: উন্নত দেশের রাষ্ট্রদূতদের আমন্ত্রণ করে পাকিস্তান দোষ ঢাকতে চাইছে তাদের৷ যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে লাগাতার গোলাগুলির পাল্টা উত্তর পেতে শুরু করায় ভয় পেয়ে গিয়েছে তারা৷ এখন বিশ্বের কাছে নিজেকে নিপীড়িত প্রমাণের চেষ্টা করছে জঙ্গি লালন করা এই দেশ৷

ক্রমাগত যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন ও ভারতের উপর গুলিবর্ষণ করা পাকিস্তান নিজেদের নির্দোষ প্রমাণ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে৷ নিজেরাই যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে হামলা চালাচ্ছে৷ পাকিস্তান আবার ভারতের জবাবে এখন কী করা উচিত দিশা না পেয়ে রীতিমত ভীত৷

আরও পড়ুন: আইএসের হামলায় রক্তাক্ত বন্দর নগরী

খবর মিলেছে পাকিস্তান নিজেদের নির্দোষ প্রমাণ ও তারাই নিপীড়িত এটা প্রমাণের জন্য পাকিস্তান সরকার বিভিন্ন দেশ থেকে রাজদূত ডেকে এনে তাঁদের দেখানোর চেষ্টা করছে পাকিস্তানের উপর হামলা চালাচ্ছে ভারত৷ যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে জম্মু কাশ্মীরের উপর লাগাতার হামলার জবাব পেয়ে পাকিস্তান এখন স্নায়বিক ভাবে দুর্বল৷ ভয় কাটাতে অন্য দেশকে পাশে পেতে চাইছে তারা৷ পাঁচটি দেশের রাষ্ট্রদূত নিয়ে তারা লাইন অফ কন্ট্রোলের রাওয়ালকোট সেক্টরে পৌঁছেছে৷

পাকিস্তান আর্মির আন্তঃপরিষেবা জনসংযোগ (আইএসপিআর) এর তরফে জানান হয়েছে আমেরিকা, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, চিন, তুর্কি এবং ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূতদের ডেকে দেখানো হয়েছে কীভাবে নাকি ভারত-পাকিস্তানের উপর হামলা চালাচ্ছে এবং সেই হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদেরও দেখানো হয়েছে৷

আরও পড়ুন: হজে মহিলাদের শরীরে ‘অশালীন স্পর্শ’, তোলপাড় দুনিয়া

আইএসপিআর এর তরফে আরও জানানো হয়, কয়েকদিনে ভারতের তরফ থেকে গোলাগুলি চালায় পাকিস্তানের বেশ কিছু মানুষের ক্ষতি হয়েছে৷ পাকিস্তানের সেই জনসংযোগ আধিকারিক জানান পাকিস্তানে ভারতের গুলিতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলেছেন এই রাষ্ট্রদূতেরা৷ পাকিস্তানের সেনারা ওই রাষ্ট্রদূতদের পাক অধিগৃহীত কাশ্মীরে রিলিফ অপারেশনের বিষয়ে বিস্তারিত জানায়৷

ইসলামাবাদের রাজনৈতিক মহল বলছে, রাষ্ট্রদূতদের আনা ও এভাবে সীমান্ত রেখা দেখানো ও সেখানকার পরিস্থিতি দেখানোর একটাই কারণ৷ পাকিস্তান এটাই বোঝাতে চাইছে এই বড় দেশগুলিকে যে, আসলে নিপীড়িত পাকিস্তান৷ এবং দিনের পর দিন এত ক্ষতি সহ্য করেও তারা ধৈর্য দেখাচ্ছে৷

আরও পড়ুন: হিজাব ছেড়ে এবার বন্দুক ধরবেন সৌদির মহিলারা

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প