আবু ধাবি: করোনা পরিস্থিতি চাকরি হারিয়েছে বহু মানুষ। শুধু ভারত নয়, সব দেশেই পরিস্থিতি একই। সৌদি আরবে এই অবস্থায় এক কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হল বহু ভারতীয়।

সৌদিতে চাকরি হারিয়ে পথে ভিক্ষা করতে বাধ্য হয়েছে অন্তত ৪৫০ ভারতীয়। আর তাদেরকেই ডিটেনশন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে একথা জানিয়েছে ওই শ্রমিকেরা।

এই সব শ্রমিকেরা তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, কাশ্মীর, বিহার, দিল্লি, রাজস্থান, কর্ণাটক, হরিয়ানা, পঞ্জাব, মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা।

ভাইরাল ভিডিওতে ওই শ্রমিকদের বলতে শোনা যাচ্ছে যে ভিক্ষা করা ছাড়া আর কোনও অপরাধ নেই তাদের। তাদের ভাড়া বাড়ি থেকে তাদের সরিয়ে নিয়ে গিয়ে ডিটেনশন সেন্টারে রাখা হয়েছে।

যারা ডিটেনশন সেন্টারে রয়েছে তাদের মধ্যে ৩৯ জন উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা, ১০ জন বিহারের বাসিন্দা, ৫ জন তেলেঙ্গানার বাসিন্দা, মহারাষ্ট্র, কাশ্মীর ও কর্ণাটক থেকে ৪ জন, অন্ধ্রপ্রদেশের এক জন।

‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’য় প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, তারা খুবই করুণ অবস্থার রয়েছে। চাকরি হারিয়ে পরিস্থিতির চাপেই তাদের রাস্তায় ভিক্ষা করতে হচ্ছে। গত চার মাস ধরেই তারা কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে। তারা জানিয়েছে, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কার শ্রমিকদের দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তারা ওখানে এখনও আটকে।

ভিডিওতে এক শ্রমিক জানিয়েছেন যে তাঁর ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে, মায়ের অবস্থাও ভালো নয়। তিনি ভারতে ফিরতে চান। সমাজকর্মী আমজেদ উল্লাহ খান জানিয়েছেন, পারমিট ছাড়া বেশিদিন থাকার কারণেই তাদের ডিটেনশন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই তিনি এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরীকে চিঠি দিয়েছেন, যাতে ওই ৪৫০ ভারতীয়কে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।