প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: লকডাউনে অপরাধ কমেছে প্রায় ৪২ শতাংশ, এমনটাই জানাচ্ছে দিল্লি পুলিশ। মার্চের ২৪ তারিখ থেকে দেশজুড়ে লকডাউন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু মোটামুটি ভাবে ১৫ মার্চ থেকেই সতর্কতা মূলক পদক্ষেপ হিসেবে রাস্তায় জমায়েত হতে নিষেধ করছিল প্রশাসন। সেই পরিসংখ্যান অনুযায়ী অর্থাৎ মার্চের ১৫ তারিখ থেকে অপরাধের সংখ্যা ৪২ শতাংশ কমে গেছে বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

পুলিশি তথ্য জানাচ্ছে, মার্চের ১৫ তারিখ থেকে ৩১ তারিখ অবধি ১,৯৯০ টি অপরাধ সংক্রান্ত অভিযোগ জমা পড়ে। অথচ গতবছর এই কদিনে জমা পড়েছিল মোট ৩৪১৬ টি অভিযোগ। সব মিলিয়ে নিশ্চিত কমেছে অপরাধ।

উল্লেখ্য, দেশব্যাপী লকডাউন জারি করার আগেই দিল্লি সরকার ধর্মীয়, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সমাবেশের ক্ষেত্রে ৫০ জনের বেশি যে কোনও জমায়েত নিষিদ্ধ করেছিল।

পরিসংখ্যানের দিকে আরও একটু গভীর ভাবে নজর দিলে দেখা যাবে, আগের বছর যেখানে ১৫ থেকে ৩১ মার্চের মধ্যে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছিল ২৩৫ টি, সেখানে এবছর ১০৮ টি ডাকাতির ঘটনা সামনে এসেছে। ছিন্তাইয়ের ঘটনা ২৯৪ এর জায়গায় হয়েছে ১৮১ টি। মহিলাদের ওপর অত্যাচারের ঘটনা ঘটেছে ৭২ টি, আগের বছর এই সংখ্যাটা ছিল ১৯৪ টি। অপহরণের ঘটনা ২৫৯ টির বদলে ঘটেছে ১৫০ টি।

উল্লেখ্য, মার্চের ২৪ তারিখ থেকে দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এখন চলছে তাঁর দ্বিতীয় সপ্তাহ। তবে এর মধ্যেও দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যুও বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। শুক্রবার একধাক্কায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল ৪৭৮ জন। একদিনে এত বেশি আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ভারতে এই প্রথম। সব মিলিয়ে প্রায় ২৬০০ -র কাছাকাছি পৌঁছে গেল আক্রান্তের সংখ্যা। দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৬২।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।