মুম্বই: ‘কিতনে আদমি থে….’ কিংবা ‘তুমহারা নাম কেয়া হ্যায় বাসন্তি…’? বলিউডের কাল্ট ছবি ‘শোলে’-এর ডায়ালগ আজও ফেরে লোকের মুখে CMOd_9kUsAEOR0Kমুখে। এখনও জয়, ভীরু, বাসন্তীতে মজে আছে সিনেপ্রেমীরা। আর সেই ফেলে আসা রামগড়, টাঙ্গা, বাসন্তী, ঠাকুর সাব, গব্বর আর জয়-বীরুতে নস্টালজিক অমিতাভ। সম্প্রতি ‘শোলে’-এর ৪০ বছর অতিক্রম করায় আবেগে ভাসলেন শাহেনশা। ট্যুইটার ওয়ালে টানালেন এই ছবির সুপারহিট কয়েকটি ডায়ালগ।
 

বন্ধুত্ব, প্রেম, প্রতিহিংসা এই তিনের মিশেলে তৈরি রমেশ সেপির ছবি ‘সোলে’। জয় ও বীরুর দুঃসাহসিক কাণ্ডকারখানা, গব্বরের ভয়, জয়-বসন্তীর প্রেম মাতিয়ে রেখেছিল সিনেপ্রেমীদের মন। এমনকি টানা ৫ বছর ধরে মুম্বাইয়ের একটি প্রেক্ষাগৃহে চলেছিল অমিতাভ বচ্চন, হেমা মালিনী ও ধর্মেন্দ্র অভিনীত এই ছবিটি।
 

চার দশক পেরিয়েও এই ছবির জনপ্রিয়তায় একটুও ভাটা পরেনি। তাই গত বছর ২০১৪ সালে এই ছবিটির ডিজিটাল পুননির্মান করা হয়। বর্তমান সময়ের দর্শকদের কথা মাথায় রেখে ২ডি ও ৩ডি প্রিন্টও করা হয়েছে।
 

ছবির জনপ্রিয়তা এতটাই যে কিছুদিন আগে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি।

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।