নয়াদিল্লি: একদিকে ভারতের সঙ্গে চিনের সংঘাত। বারবারই ভারতকে সমর্থন জোগাচ্ছে আমেরিকা। এরই মধ্যে ভারতে পাঠানো হল একের পর এক অ্যাডভান্স হেলিকপ্টার।

এয়ারক্রাফট নির্মাণকারী সংস্থা বোয়িং জানিয়েছে যে ভারতের হাতে ৩৭টি অ্যাডভান্স হেলিকপ্টার তুলে দেওয়া হয়েছে।

বোয়িং-এর তরফে জানানো হয়েছে যে, ২২টি অ্যাপাচে ও ১৫টি চিনুকের ডেলিভারি সম্পূর্ণ করেছে এই সংস্থা। গত মাসেই ডেলিভারি সম্পূর্ণ হয়েছে। লাইন অর্ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে এয়অর ফোর্সের যে ফ্লিট মোতায়েন করা হয়েছে, তার অন্যতম অংশ এই হেলিকপ্টারগুলি।

২০১৫-র সেপ্টেম্বরে বোয়িং -এর সঙ্গে এইসব হেলিকপ্টারগুলি কেনার চুক্তি সম্পন্ন হয়।

প্রসঙ্গত, AH-64E Apache হল বিশ্বের সবচেয়ে আধুনিক কপ্টার। বিশ্বে মোট ১৭টি দেশ এই কপ্টার ব্যবহার করে । একসঙ্গে একাধিক কাজ করতে পারে কপ্টারগুলি। মার্কিন সেনাও এই কপ্টার ব্যবহার করে। এদিকে চিনুক সেনার রসদ সরবরাহে ব্যবহার করা হয়। জ্বালানি, বারুদ, অস্ত্র এমনকী সেনা জওয়ানদের গন্তব্য পৌঁছে তে এই কপ্টারের জুড়ি মেলা ভার।

বোয়িং ইন্ডিয়া ডিফেন্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুরেন্দর আহুজা জানিয়েছেন, “সেনাবাহিনীর জন্য কপ্টার সরবরাহ করে আমরা ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর সঙ্গে সম্পর্ক মজবুজ করছি। তাদের চাহিদা মতো ভবিষ্যতেও কপ্টার সরবরাহ করা হবে।” ইতিমধ্যে পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা এলাকায় অ্যাপাচে কপ্টার পাঠানো হচ্ছে। চিনের সঙ্গে উত্তেজনার মাঝেই লাদাখে পাঁচটি অ্যাপাচে পাঠানো হয়েছিল। এবার সেই সংখ্যাটা বাড়বে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ