স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: বরযাত্রী বোঝাই পিকআপ ভ্যানের সঙ্গে চাল বোঝাই বেপরোয়া ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ। ঘটনায় পিকআপ ভ্যানের চালক সহ বরযাত্রীদের ৩০ জনেরও বেশি জখম হয়েছে। গঙ্গারামপুর থানার ফুলবাড়ী এলাকার ঘটনা। সংঘর্ষে পিকআপ ভ্যানের যাত্রীরা ছিটকে রাস্তায় পড়ে যান। বেশ কয়েকজন পিকআপের তলায় চাপাও পড়ে যান। স্থানীয়রা ছুটে এসে সকলকে উদ্ধার করে গঙ্গারামপুর সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে পৌঁছে দেন বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ৫১২ নম্বর জাতীয় সড়কে বালুরঘাটের দিক থেকে চালের বস্তা বোঝাই একটি লরি গঙ্গারামপুরের দিকে যাচ্ছিল। ফুলবাড়ীর নোকোট উল্টো দিকে গঙ্গারামপুর থেকে আসা বরযাত্রী বোঝাই পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনায় আশপাশের লোকজন ছুটে এসে পিকআপ ভ্যানের তলে চাপা পড়া সহ জখম সকলকে উদ্ধার করেন। অভিযোগ চালবোঝাই লরিটি বেপরোয়া ভাবে রাস্তায় পর পর দুইটি বাইকেও ধাক্কা মেরেছিলো।

জেলার মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সুকুমার দে জানিয়েছেন, ফুলবাড়ীর দুর্ঘটনায় দুই মহিলা ও শিশু সহ মোট চারজনকে আশংকাজনক অবস্থায় মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এর বাইরেও বাকি ৩৩ জনের চিকিৎসা গঙ্গারামপুর হাসপাতালে চলছে। গঙ্গারামপুর হাসপাতালে ভর্তিদের মধ্যে ৬ জন পুরুষ বাদে সকলেই মহিলা। পাশাপাশি মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক একথাও জানিয়েছেন যে, স্থানীয়রা সময় মত জখমদের হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছে, সেই সঙ্গে গঙ্গারামপুর হাসপাতালের চিকিৎসক নার্স ও অন্যান্য কর্মীদের তৎপরতা ও সঠিক চিকিৎসার ফলে বড়সড় মৃত্যুর ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।