বিছানায় আনন্দ নিতে অনেক কিছুই করে থাকেন সবাই। কিভাবে রোমান্টিক হওয়া যায়, কিভাবে যৌনজীবন আরও মধুর করা যায় সেব্যাপারে অনেকেই অনেক কিছু ভাবেন। কিন্তু শারীরিক মিলনের পর কি করা উচিৎ, সেটা নিয়ে কেউ মাথা ঘামান না। বিশেষত মহিলাদের এই বিষয়গুলি অবশ্যই মাথায় রাখা উচিৎ।

১. মূত্রত্যাগ করুন: একথাটা হয়ত আগেও অনেকবার শুনেছেন। তবে এটা যে কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেকথা আরও একবার মনে করিয়ে দেওয়া উচিৎ। মিলনের পর শোয়ার আগে মূত্রত্যাগ করতে ভুলবেন না। এতে আপনি অনেক যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবেন।

কারণ মিলনের সময় ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকে। যা আপনার শরীরের ভিতর ঢুকে যায়। যা ব্লাডারেও পৌঁছে যেতে পারে। কিন্তু মিলনের পর মূত্রত্যাগ করে সেই সম্ভাবনা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। ব্যাকটেরিয়াগুলি মূত্রের সঙ্গে বেরিয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: সঙ্গী বিছানায় একেবারে অভিজ্ঞ, কী করে বুঝবেন জেনে নিন?

২. জল খান: সেক্স কিন্তু একটা এক্সারসাইজ। কারণ এক্ষেত্রেও শরীরের পরিশ্রম হয় ও ঘাম ঝরে। তাই মিলনের পর জল না খেলে আপনার শরীরে ডিহাইড্রেশন হতে পারে। তাই জল খাওয়া অত্যন্ত জরুরি। ঠিক যেমন জিম করার পর জল খেতে হয় তেমনই। পাশাপাশি জল খেলে মূত্রের মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়াও বেরিয়ে যাবে।

৩. সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন: সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন কিন্তু তাই বলে গন্ধযুক্ত সাবান ব্যবহার করবেন না। গন্ধহীন সাবান দিয়ে যৌনাঙ্গ পরিষ্কার করলে ব্যাকটেরিয়াগুলি ধুয়ে যাবে। তবে ভিতরে সাবান দিয়ে পরিষ্কার করার প্রয়োজন নেই। শরীর নিজেই সেটি পরিষ্কার করতে পারে।

আরও পড়ুন: মহিলাদের নিয়ে যে ১৫টি ভুল ভাবনা এখনই ত্যাগ করা উচিত পুরুষদের

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।