বেজিং: এক অদ্ভুত সকাল। একটি নয়, আকাশে যেন পাশাপাশি তিনটি সূর্য। এমনই এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের সাক্ষী রইল উত্তর-পূর্বের চিনা শহর মোহের বাসিন্দারা।

বিজ্ঞান বলে, এমন ঘটনা নাকি কখনই সম্ভব নয়। কিন্তু আদতে এমন এক দৃশ্যই দেখা গিয়েছে চিনে। ইতিমধ্যেই ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে। যা দেখে চমকে যেতে হয়। চিনের মোহে শহরের বাসিন্দারা এদিন হঠাত্‍ই সকালে উঠে চমকে যান। দেখেন, আকাশে তিনটি সূর্য রয়েছে। সকাল সাড়ে ছ’‌টা থেকে সাড়ে ন’‌টা পর্যন্ত এই ঘটনা দৃশ্যমান হয় বলে জানিয়েছেন মোহে শহরের বাসিন্দারা।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই তিনটি সূর্যের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ফ্যান্টম সান নামে দুটি উজ্জ্বলতম অংশ সূর্যের দু’‌পাশে চিহ্নিত করা গিয়েছে। মাঝখানে রয়েছে আসল সূর্যটি। সান ডগস নামে পরিচিত এই মহাজাগতিক দৃশ্য দেখে অনেকই চমকে গিয়েছেন। কিন্তু এই ঘটনা আর কিছুই নয়, কেবল সূর্যের প্রতিফলন মাত্র। আর সূর্যের প্রতিফলের ফলে দুটি আলাদা আলোক বিন্দু তৈরি হয়েছে আকাশে। যেটিকে দেখে সাধারণ চোখে মনে হচ্ছে তিনটি সূর্য।

চিনে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এত সময় ধরে এই তিনটি সূর্য দেখতে পাওয়ার ঘটনা এই অংশে প্রথম। এই বিষয়টিকে সান ডগ বলা হয়। ‘parhelion’‌ নামে মেঘের মধ্যে বরফের কুণ্ডলিতে সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয়ে এমন কাণ্ড আকাশে ঘটে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। কখনও এটি দেখা যায় রামধনু হিসাবে, কখনও এটির দেখা মেলে সান ডগ হিসাবে।

আমাদের মাথার উপরে বাতাসের যে আস্তরণ আছে, যে মহাজগত আছে, সেটি খুবই আকর্ষণীয় একটি জিনিস। মাঝে মধ্যেই সেখানে আকর্ষণীয় বিষয় ঘটে। যদি নজর রাখা যায় সেখানে মাঝে মাঝেই এমন সব কাণ্ডের দেখা মিলবে, জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে উত্তর চিনের একটি অংশে পাঁচটি সূর্যের দেখা মিলেছিল। রাশিয়াতে ২০১৫ সালে দেখা গিয়েছিল তিনটি সূর্যের সূর্যোদয়।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।