ফরিদাবাদ: ফের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড৷ শনিবার দিল্লির কাছে ফরিদাবাদে একটি প্রাইভেট স্কুলে এই আগুন লাগে যা সুরাতের কোচিং সেন্টারের ভয়াবহ স্মৃতিফের উসকে দেয়৷ গত মাসে যে আগুনে প্রাণ হারিয়েছিল ২২ জন পড়ুয়া৷

জানা গিয়েছে, ফরিদাবাদের ডুবুয়া কলোনিতে শনিবার ভোরে একটি স্কুলের মধ্যে আগুন লাগে৷ তবে তা কীভাবে লাগে তা স্পষ্ট নয়৷ অত্যন্ত সঙ্কীর্ণ রাস্তা হওয়ায় দমকলবাহিনীর সেখানে পৌঁছতে অসুবিধা হয়৷ আগুনে দুই মহিলা এবং এক শিশুর মৃত্যু হয়৷ স্কুলে গরমের ছুটি থাকলেও, ওই পরিবার স্কুলের মধ্যেই থাকত৷ ছাদ দিয়ে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় তাদের বাইরে নিয়ে আসতে গিয়ে আরও ২ জন আহত হয়৷ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই ওই দুই শিশু এবং মহিলার মৃত্যু হয়৷

পড়ুন: ধাক্কা খেল কেজরিওয়ালের বিনামূল্যে মহিলাদের যাতায়াতের পরিকল্পনা

এর আগে জুনের শুরুতেই, অর্থাৎ ২ জুন বিধংসী আগুনের গ্রাসে চলে আসে নয়ডার একটি কমার্শিয়াল বিল্ডিং৷ শনিবার রাতে নয়ডার ১৫ নম্বর সেক্টরের একটি বিল্ডিংয়ে ভয়াবহ আগুন লাগে৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয় ১৫টি ইঞ্জিন৷

এই ঘটনায় আশেপাশের আবাসনের মানুষের মধ্যে প্যানিক ছড়িয়ে পড়ে৷ দমকল থেকে দ্রুত সেই সব আবাসান খালি করে দেওয়া হয়৷ রাত ৯টা ২৫মিনিট নাগাদ আগুন লাগে৷ স্থানীয়রাই প্রথম ওই বিল্ডিং থেকে আগুন বের হতে দেখেন৷ তারাই খবর দেন দমকলকে৷ এমন বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে নয়ডার এইচ ব্লকের সেক্টর ৬৩তে৷ ইলেকট্রিসি ট্রান্সফরমারে আগুন লেগে তা ছড়িয়ে পড়ে৷ আগুনের গ্রাসে পুড়ে যায় কয়েকটি গাড়ি৷ সামনে পার্কিংয়ে থাকা দুটি চার চাকা ও আটটি বাইকে আগুন ধরে যায়৷ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এএইচ ব্লকের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷

এদিকে শনিবার ফরিদাবাদের ঘটনায় একদিকে যেমন আতঙ্ক ছড়িয়েছে তেমনই তিন জনের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়৷