দেরাদুন: ঋষিকেশে গঙ্গার পারাপারে ব্যবহৃত ও দর্শনীয় লছমন ঝুলা সেতু এবার বন্ধ হল পথচারীদের জন্য। তিনদিন আগে সবরকম যান চলাচল বন্ধ করে দেয় উত্তরাখণ্ড সরকার।

রাজ্যের পূর্ত দফতর সম্প্রতি একটি রিপোর্টে জানিয়েছে, এ ব্রিজের অবস্থা খারাপ, যে কোনও সময়েই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। সে রিপোর্টকে ভিত্তি করেই উত্তরাখণ্ড সরকার তৎক্ষণাৎ সেতু বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ জারি করেছে।

দিনের পর দিন এই সেতুতে যাতায়াতের পরিমাণ বেড়ে চলায়, একইসাথে বাড়ছে বিপদও। বিশেষজ্ঞরা অনেক আগেই জানিয়েছিলেন, যত দ্রুত সম্ভব এই সেতু বন্ধ করতে হবে। একদিকে সেতুটি ঝুলে যেতেও শুরু করেছিল। তাই সকলের জন্যই সেতুটি দ্রুত বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে উত্তরাখণ্ড সরকার।

এ সিদ্ধান্তের ফলে সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে স্থানীয় প্রশাসনের। আগামী ১৭ জুলাই তীর্থযাত্রীরা কাঁওয়ার যাত্রা শুরু করবেন।

১৩৬ মিটার দীর্ঘ এ সেতু বন্ধ হয়ে যাওয়ায় টেহরি গাড়ওয়াল ও পৌরি গাড়ওয়ালের বাসিন্দাদের আরও দু কিলোমিটার পথ হেঁটে রামঝুলা সেতু দিয়ে গঙ্গা পার হতে হবে। ১৯২৩ সালে পূর্ত দফতর এই সেতু নির্মাণ করেছিল। তারাই এত দিন পর্যন্ত সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে ছিল।

তপোবন ও তেহরির মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে সেই সেতু। গঙ্গার পশ্চিম তীরে অবস্থিত এই ব্রিজ। এই ঝুলাকে কেন্দ্র করে মন্দির, বাজার, হোটেল ও আশ্রম গড়ে উঠেছে। ঋষিকেশের সবচেয়ে নামকরা জায়গা বলতেও এই লছমন ঝুলা।

এই জায়গায় বহু পপুলার সিনেমা ও গোয়েন্দা টিভি সিরিজের শ্যুটিং হওয়ায় বিভিন্ন কর্নার যারা এখানে আসে নি তাদের কাছে ক্রমশ চেনা হয়ে উঠেছে।