স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা: তিন দিন ব্যাপী বেঙ্গল ট্যুরিজম ফেস্টিভ্যাল শুরু হল দিঘাতে। শুক্রবার নিউ দিঘার পুলিশ হলিডে হোম মাঠে এই ফেস্টিভ্যালের উদ্বোধন করেন কাঁথির সাংসদ শিশির অধিকারী। রাজ্য পর্যটন দফতরের উদ্যোগে দিঘাতে এই ফেস্টিভ্যাল শুরু হল। বর্তমান সরকারের আমলে দিঘা আরও সুন্দরভাবে সেজে উঠেছে। আরও বেশি করে পর্যটকদের দিঘা মুখি করতে এবং কি কি সুবিধা পাবে পর্যটকরা তা এই ফেস্টিভ্যালে তুলে ধরা হবে।

সাংসদ শিশির অধিকারী জানান, দিঘা, মন্দারমনি ও তাজপুর এলাকা জুড়ে পর্যটন কেন্দ্র। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনুপ্রেরণায় এই পর্যটন উৎসব। এই ফেস্টিভ্যালে সরকারি ও বেসরকারি টুর অপারেটর মিলে মোট ১৫ টি স্টল রয়েছে৷

নোনাজলের ফেনিল ছাপ স্পষ্ট বালুকাবেলায়। আছড়ে পড়ে ঢেউ। সমুদ্রের গর্জন ধেয়ে আসে কিনারে। পড়ন্ত বেলায় সূর্যটা পশ্চিম আকাশে হেলে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে শীতের তীব্রতা। সকাল, দুপুর, বিকেল নেই, হাজারো মানুষের পদচারণয় জেগে থাকে সৈকত। ভোরবেলা ঝাউ বনে পাখিদের ডাকাডাকি। সমুদ্রের গর্জন ঘুম ভাঙায় পর্যটকদের। পুব আকাশে নতুন সূর্য লাল আভা ছড়ানোর অনেক আগে সমুদ্রে মাছ ধরতে নেমে পড়া জেলেদের। সৈকতের শীতের গল্পটা যেন একটু ভিন্ন। যেন নিজের সৌন্দর্যটা দেখাতেই হাতছানি দিয়ে ডাকছে।

সমুদ্রের টানে বছর বছর পর্যটকদের ভিড় বাড়ছে দিঘাতে। কিন্তু শীতটাই যেন প্রকৃত সময়। আর সে কথা মাথায় রেখেই শীতের শুরুতেই সৈকত ভ্রমণের আনন্দটা আরও নিবিড় করতে শুরু হয়েছে উৎসব। প্রতিদিন নানা বিষয়ে আলোচনা, ক্যুইজ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকছে। পর্যটকদের কাছে বাড়তি পাওয়া।

পুলিশ হলিডে হোম মাঠে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে এই বেঙ্গল ট্যুরিজম ফেস্টিভ্যাল। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর লোকশিল্পী গোষ্ঠীর নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য তুলে ধরতে আয়োজন করা হয়েছে এই পর্যটন উৎসব। গত কয়েক বছরে রাজ্যের পর্যটন মানচিত্রের প্রথম সারিতে উঠে এসেছে দিঘা সৈকত। দুর্গা পুজোর সময় থেকে এখন পর্যন্ত ব্যাপক ভিড় রয়েছে। আর এই আবহের মাঝেই সৈকতে উৎসব শুরু হওয়ায় আরও পর্যটকদের আনাগোনা বেড়েছে। পর্যটন উৎসব শুরু হওয়ার খবরে উচ্ছ্বসিত পর্যটন-ব্যবসায়ীরা।

দিঘা-শঙ্করপুর হোটেলিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক বিপ্রদাস চক্রবর্তী বলেন,‘‘পর্যটন উৎসবের জন্য প্রচুর মানুষ আসছেন। এতে সবারই ভাল হবে।’’

শিশির বাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পর্যটন দফতরের উপ সচিব সীমা হালদার, রামনগর ১ নং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শম্পা মহাপাত্র, সহ সভাপতি তিনাই সার ও বিভিন্ন আধিকারিক বৃন্দ।