নয়াদিল্লি: করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় ভারত ক্রমশ অন্যান্য দেশকে পিছনে ফেলে দিচ্ছে। প্রায় ১০ লক্ষের কাছাকাছি পৌঁছে গেল ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

শেষ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ২৯০০০, যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক। ভারতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯.৩৬ লক্ষে পৌঁছে গিয়েছে। মৃতের সংখ্যা মোট ২৪,৩০৯।

দেশের মোট করোনা আক্রান্তের ৮৬% রোগী ১০টি রাজ্যের। মঙ্গলবার পরিসংখ্যান তুলে ধরে এমনই জানানো হয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে।

লাগামছাড়া সংক্রমণ গোটা দেশে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ হাজার ৪৯৮ জন। নতুন করে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫৫৩ জনের। সব মিলিয়ে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া আপডেট অনুযায়ী দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯ লক্ষ ৬ হাজার ৭৫২। দেশে করোনায় মৃত বেড়ে ২৩ হাজার ৭২৭।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, দেশের মোট সংক্রমিতের ৮৬% রোগী ১০টি রাজ্যের। তার মধ্যে ৫০% রোগী মহারাষ্ট্র ও তামিলনাড়ুর বাসিন্দা। বাকি ৩৬% করোনা রোগী বাকি ৮ রাজ্যের বাসিন্দা। দেশের মধ্যে করোনার সর্বাধিক সংক্রমণ মহারাষ্ট্রে।

এদিকে, সম্প্রতি নতুন এক আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। হু জানিয়েছে বাতাসেও বেশ কিছুক্ষণ বেঁচে থাকতে পারে করোনা ভাইরাস। অর্থাৎ এটা বায়ুবাহিত হতেও পারে। এবার এই প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দিল আইসিএমআর।

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে আইসিএমআরের ডিজি বলরাম ভার্গভ বলেন, এই ভাইরাস ড্রপলেটের মাধ্যমে ছড়ায়। তিনি জানিয়েছেন, অনেক বিজ্ঞানীদের মতে, এই ভাইরাসের বায়ুবাহিত ট্রান্সমিশনও হতে পারে। ৫ মাইক্রনের থেকে ছোট সাইজের মাইক্রড্রপলেটের মাধ্যমে সেই সংক্রমণ হওয়া সম্ভব। তাই মাস্ক ও সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং জরুরি বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ