প্যারিস: ফ্রান্সে ম্যাচ চলাকালীন ফুটবল স্টেডিয়ামের পাঁচিল ভেঙে আহত ২৯ জন সমর্থক৷ এঁদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷

শনিবার উত্তর ফ্রান্সের অ্যামিয়েন্স শহরে ফুটবল ম্যাচ চলাকালীন এই দুর্ঘটনা ঘটে৷ অ্যামিয়েন্সও লিলি টিমের মধ্যে তখন ম্যাচ চলছিল৷ ম্যাচ চলাকালীনই গ্যালারির পাঁচিল ভেঙে পড়ায় আহত হন ২৯ জন সমর্থক৷ যাঁদের মধ্যে বেশ কয়েক জনের গুরুতর চোট লেগেছে৷ কারোর মাথায় চোট৷ কেউ আবার বুকে ব্যাথ্যা পেয়েছেন৷

আরও পড়ুন: স্টেডিয়ামে পদপৃষ্ট হয়ে মৃত ১৭ ফুটবলপ্রেমী

অ্যাওয়ে ম্যাচে লিলি সমর্থকরা প্রথম গোলের পর উচ্ছ্বাস দেখানোর সময় গ্যালারির পাঁচিল ভেঙে পড়ে৷ ফরাসি ফুটবলে স্থানীয় লিগে এই দু’দলই চির প্রতিদ্বন্দ্বী৷ দুর্ঘটনার পরই ম্যাচ বন্ধ করে দেন রেফারি থমাস লিওনার্ড৷ মাত্র ১৬ মিনিট খেলা হয়৷ আহতদের চিকিৎসার জন্য দ্রুত এগিয়ে আসে রেড ক্রস ও সাহয্যকারি দল৷

আরও পড়ুন: গাড়ি দুর্ঘটনায় জোর বাঁচলেন ভারতীয় ক্রিকেটার

আহত এক সমর্থক জানান, ‘কখন ঘটনাটি ঘটে বুঝতেই পারিনি৷ এমনকি আমরা জানতেও পারিনি কে গোলটা করছে৷ দেখলাম বেশ কিছু দর্শক আমাদের উপর পড়ে গেল৷ তার পর আমি কিছু দেখতে পাইনি৷ উদ্ধারকারী দল এসে আমাকে বাঁচায়৷’ বছর একুশের লিলি সমর্থক পা ও কোমোড়ে গুরুতর চোট লেগেছে৷

আরও পড়ুন: গেইলের খেলা দেখতে এসে প্রাণ হাতে নিয়ে ফিরলেন শতাধিক

১৯৯৯ সালে তৈরি হয় স্টেডিয়াম অফ দ্য ইউনিকর্ন৷ ফ্রান্সের লিগ ওয়ান ক্লাবের এটি সবচেয়ে ছোট স্টেডিয়াম৷ দর্শকাসন মাত্র ১২ হাজার৷ স্টেডিয়ামটিতে সংস্কার কাজ চলছিল৷ স্টেডিয়ামটিকে নতুন রূপ দেওয়ার কাজ হচ্ছিল৷ স্থানীয় এক পলিটিসিয়ান জানান, ‘স্টেডিয়ামের সংস্কারের কাজ জুন মাস থেকে শুরু হয়েছে৷ একের পর এক স্ট্যান্ডের কাজ হচ্ছিল৷ সেই কারণে বেশ কিছু সিট তুলে নেওয়া হয়৷ এর জন্য টেম্পোরারি স্ট্যান্ড করা হয়৷’

অ্যামিয়েন্স প্রেসিডেন্ট বার্নাড জোয়ানিন জানিয়েছেন, ‘পুলিশ আগেই সতর্ক করেছিল৷ কিন্তু তবু ২০০ বেশি কট্টর সমর্থক স্টেডিয়ামের এই অংশে ঢুকে খেলা দেখছিল৷’ গত বছর অডিট রিপোর্টে স্টেডিয়ামের ছাদকে ‘সিরিয়াস ডেঞ্জার’ অ্যাখ্যা দেওয়া হয়৷