নয়াদিল্লি: ১৫ ফুট উঁচু ব্রিজ থেকে বাস পড়ে মৃত ২৯। ভয়াবহ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে যমুনা এক্সপ্রেসওয়েতে। আহত অন্তত ১৭ জন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, এই এক্সপ্রেসওয়েটি ৬ টি রাস্তা যুক্ত। পুলিশ সূত্র থেকে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, বাসটি ১৫ ফুট নিচে একটি বিশাল ড্রেনে গিয়ে পড়ে। ১৬৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রাস্তাটি উত্তর প্রদেশের নয়ডা থেকে আগ্রাকে সংযুক্ত করেছে। বাসটি লখনউ থেকে দিল্লির দিকে যাচ্ছিল, সেইসময় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

উত্তরপ্রদেশ পুলিশের তরফ থেকে ট্যুইট করে জানানো হয়েছে, ”একটি স্লিপার কোচ বিশিষ্ঠ যাত্রী বাহি বাস লখনউ থেকে দিল্লি আসার পথে যমুনা এক্সপ্রেস ওয়েতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। বাসটি প্রায় ১৫ ফুট গভীরে গিয়ে পড়ে। এখনও পর্যন্ত ২০ জন যাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। উদ্ধার কার্য চলছে।”

একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাদা রঙের বাসটি দুমড়ে গেছে এবং সেখান থেকেই দেহ গুলিকে টেনে বাইরে নিয়ে আসা হচ্ছে। একটি বেশ বড়ো ড্রেনের মধ্যে বাসটি ঢুকে যাওয়ার ফলেই এই ঘটনা ঘটে। পচা পাঁকের মধ্যে থেকে যত দ্রুত সম্ভব দেহ গুলি বাইরে নিয়ে আসার চেষ্টা চলছে।

মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই ঘটনায় খুবই শোকাহত। আহত ও নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের লোকেরা যাতে সমস্ত রকম সুযোগ সুবিধা লাভ করে, সেদিকে বিশেষ নজর দিতে বলেছেন তিনি।