নয়াদিল্লি : ছাব্বিশ এগারোর অন্যতম ষড়যন্ত্রকারী ও ডেভিড কোলম্যান হেডলির ডান হাত তাহাউর রাণাকে ফের গ্রেফতার করা হল। লস অ্যাঞ্জেলস থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। করোনা আক্রান্ত ধরা পড়ায়, জেল থেকে ছাড়া হয়েছিল তাকে। তবে ভারত প্রত্যাবর্তনের আবেদন করায়, ফের গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে। সূত্রের খবর দ্রুতই তাকে ভারতের হাতে তুলে দিতে পারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

জন্মসূত্রে পাকিস্তানি রাণা ছাব্বিশ এগারো মুম্বই হামলার অন্যতম ষড়যন্ত্রী। ২০০৮ সালে মুম্বইয়ে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ চালানোর পিছনে বড়সড় হাত ছিল রাণার। এই বিস্ফোরণ ও হামলায় মারা যান ১৬৬জন মানুষ।

বর্তমানে কানাডার নাগরিক ৫৯ বছরের এই রাণা। একটি খুনের মামলায় ১৪ বছরের সাজা হয় তার। সেই সূত্রে জেলবন্দীও ছিল। ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার কথা তার। কিন্তু এরই মাঝে করোনা আক্রান্ত হয়ে অন্যান্য আসামীদের সঙ্গে জেল থেকে ছাড়া পায় রানা। ভারতে প্রত্যার্পণের জন্য ১০ জুন ফের গ্রেফতার করা হয় তাহাউরকে। বিদেশমন্ত্রক সূত্রে জানা যাচ্ছে, এখন চেষ্টা চলছে আইনি প্রক্রিয়া মিটিয়ে তাহাউর হুসেন রানাকে ভারতে ফিরিয়ে আনার। অনেকদিন ধরেই তাহাউরকে নিজেদের হেফাজতে চাইছে ভারত।

তাহাউর রানার বিরুদ্ধে অভিযোগ ২০০৬ থেকে ২০০৮ সালের মধ্যে ডেভিড হেডলির সঙ্গে ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা করে এই রানা। সঙ্গে ছিল লস্কর ই তইবা ও হারাকত উল জিহাদ ই ইসলামি। মুম্বইয়ে বড়সড় নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করে তারা।

২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর৷ আরব সাগর দিয়ে বাণিজ্যনগরীতে ঢুকে পড়েছিল দশ সশস্ত্র লস্কর জঙ্গি৷ গোটা শহরকে ঘিরে ফেলে শুরু হয় তাদের তাণ্ডব৷ কালাশনিকভ হাতে মুম্বই শহরে দাপিয়ে বেড়ায় আজমল কাসব সহ দশ লস্কর জঙ্গি৷ এলোপাথাড়ি গুলি আর বিস্ফোরণে ১৮ জন নিরাপত্তাকর্মী সহ মৃত্যু হয় ১৬৬ জন নিরীহ মানুষের৷

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।