স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ ও কলকাতা: পিছল কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সভার তারিখ৷ আগামী ১৫ই মার্চ এই সভা হওয়ার কথা ছিল মালদহে৷ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র জানিয়েছেন, ১৫ নয়, এই সভা হবে আগামী ২৩ তারিখ৷ ওই দিন বেলা তিনটেয় সভা শুরু হওয়ার কথা৷

মালদহ দিয়েই বাংলার প্রথম প্রচার শুরু করতে চলেছেন রাহুল গান্ধী৷ তাঁর সভার আয়োজনের প্রস্তুতি শুরু করলেন প্রদেশ নেতারা৷ সভাস্থল পরিদর্শন করতে শনিবার মালদহে গেলেন সোমেন মিত্র, প্রদীপ ভট্টাচার্য ও শুভঙ্কর সরকাররা৷ সামসি কলেজ মাঠ ও চাঁচলের একটি মাঠ পরিদর্শন করেছেন প্রদেশ নেতৃত্ব৷ এই দুটো জায়গাই উত্তর মালদহের মধ্যে পড়ছে৷ পরে সাংবাদিকদের প্রদেশ সভাপতি জানিয়েছেন, সামসি কলেজ মাঠটি প্রাথমিকভাবে ঠিক করা হয়েছিল৷ কিন্তু প্রশাসনের অনুমতি মেলেনি৷ চাঁচলেই সভা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে৷

সোমেন মিত্র জানান, ১৫ তারিখ জুম্মাবার৷ ওই দিন মুসলিম ভাইরা নামাজ পরবেন৷ তাই সেদিন বিকেল পাঁচটার পর হেলিকপ্টার নামার অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন৷ কংগ্রেস সূত্রে খবর, যেহেতু উত্তরবঙ্গে দলের ভোট ব্যাংক বেশ মজবুত এবং সেখান থেকেই এবার আসন জেতার জোরালো সম্ভবনা রয়েছে তাই উত্তরবঙ্গ থেকেই প্রচার শুরু করছেন রাহুল গান্ধী। দক্ষিনবঙ্গে কবে সভা করবেন সে ব্যাপারে এখনো কিছু ঠিক হয়নি।

কিন্তু উত্তরের অন্য জেলাগুলি থাকতে মালদহ থেকেই প্রচার শুরু কেন? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এর একটি বড় কারণ যদি হয় মৌসম নূরের দলত্যাগ আরেকটি জেলায় বিজেপির উত্থান। গনিখান চৌধুরীর মালদহ বরাবরই কংগ্রেসের গড়। প্রবল মমতা কিংবা মোদী ঝড়েও সেখানকার মানুষ কংগ্রেসের হাত ছাড়েননি। কিন্তু গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে সেই মালদহতেই তৃণমূল দারুন ফল করেছে। জেলায় উত্থান হয়েছে বিজেপিরও। কিছুদিন আগে মালদহে অমিত শাহের সভায় ভিড় কংগ্রেস-তৃণমূল দু দলকেই চিন্তায় ফেলেছে।

এদিকে উত্তর মালদহ এবং দক্ষিণ মালদহ দুটি লোকসভা কেন্দ্রই এতদিন কংগ্রেসের দখলে ছিল। কিন্তু ভোটের মুখে উত্তর মালদহের সাংসদ মৌসম নূর তৃণমূলে চলে গিয়েছেন। ‘বেইমান’ মৌসমকে শিক্ষা দিতে এই আসনটি জিততে মরিয়া হাত শিবির। অন্য আসনটির জয় নিয়েও কংগ্রেসের মনে কিছুটা ভয় রয়েছে। তাই মালদহকে দখলে রাখতে রাহুল গান্ধীকেই এবার মাঠে নামতে হচ্ছে।

এদিকে সিপিএমের সঙ্গে কংগ্রেসের আসন সমঝোতার প্রক্রিয়া অথৈ জলে। কংগ্রেস একলা লড়বে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ তবে রাজ্য-রাজনীতি একটা বিষয় দেখার জন্য উদগ্রীব যে রাহুল গান্ধী বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন কিনা৷ কারণ বাংলার প্রদেশ নেতাদের প্রবল মমতা বিরোধীতা সত্বেও তিনি একাধিক ইস্যুতে তৃণমূলনেত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। দিল্লিতে রাহুল-মমতার ঐক্যবদ্ধ ছবি বাংলাতেও একইরকম থাকে কিনা দেখাই দেখার৷