মিরাইতোয়া ও সোমেইতি৷ ছবি- টোকিও অলিম্পিক্স অফিসিয়াল ওয়েবসাইট

টোকিও: বিশ্বের সর্ববৃহৎ বহুজাতিক ক্রীড়া মহাযজ্ঞের আসর বসতে এখনও দু’বছর বাকি৷ ইতিমধ্যেই আত্মপ্রকাশ করল ২০২০ টোকিও অলিম্পিকের ম্যাসকট৷ একই সঙ্গে টোকিও প্যারা-অলিম্পিকের ম্যাসকটও প্রকাশ্যে এল প্রথমবার৷

আরও পড়ুন: ৫৩ বছরের খরা কাটিয়ে অবশেষে লক্ষ্যভেদ

২০২০’র ২৪ জুলাই থেকে ৯ অগস্ট পর্যন্ত টোকিওয় অনুষ্ঠিত হবে পরবর্তী অলিম্পিক গেমস৷ ঠিক তার পরে ২৫ অগস্ট থেকে ৬ সেপ্টেম্বর একই কেন্দ্রগুলিতে অনুষ্ঠিত হবে প্যারা-অলিম্পিকে গেমস৷ সুতরাং হাতে এখনও দু’বছর সময় রয়েছে৷ এই অবস্থায় আয়োজক জাপান অলিম্পিক সংস্থার তরফে দুই গেমসের ম্যাসকট প্রকাশ করা হয়৷

আরও পড়ুন: প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের সঙ্গে ড্র ভারতের মেয়েদের

অলিম্পিক গেমসের ম্যাসকটের নাম দেওয়া হয়েছে মিরাইতোয়া৷ প্যারালিম্পিক গেমসের ম্যাসকট সোমেইতি৷ সনাতনী জাপানি সংস্কৃতি ও উদ্ভাবনী শক্তির মিশেলে রুপ দেওয়া হয়েছে ম্যাসকট দু’টির৷

ম্যাসকটের প্রকাশ অনুষ্ঠান৷ ছবি- টোকিও অলিম্পিক্স অফিসিয়াল ওয়েবসাইট

গত বছর ১ থেকে ১৪ অগস্ট ম্যসকট নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করে আয়োজকরা৷ ৭ ডিসেম্বর কাকেজুকা এলিমেন্টারি স্কুলে প্রাথমিকভাবে তিনটি পৃথক জু’টির মডেল প্রকাশ করা হয়৷ ১১ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা ভোট দেন নিজেদের পছন্দের ম্যাসকট জুটিকে৷ ২৮ ফেব্রুয়ারি ফলাফল ঘোষণা করা হয়৷ শেষমেশ দু’টি ম্যাসকটের নামকরণ করে তা প্রকাশ করে আয়োজক কমিটি৷

আরও পড়ুন: ৪০০ মিটারে রেকর্ড ভাঙলেন ভারতের দৌড়বিদ

অলিম্পিকের ম্যাসকট মিরাইতোয়া’র নামকরণ করা হয়েছে জাপানি শব্দ ‘মিরাই’, যার অর্থ ভবিষ্যৎ ও ‘তোয়া’ অর্থাৎ চিরন্তন বা অনন্তকালের সনম্বয়ে৷ প্যারা-অলিম্পিকের ম্যাসকট সোমেইতি’র নামরকণ করা হয়েছে জাপানি শব্দ সোমেইয়োশিনহো ও ইংরাজি শব্দবন্ধ ‘সো-মাইটি’র অনুকরণে৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে রুপো ভারতের

নির্মিয়মান অলিম্পিক ভিলেজের সামনের নদীতে ওয়াটার প্যারেডে আত্মপ্রকাশ করে মিরাইতোয়া ও সোমেইতি৷ ক্যারাটে তারকা কিয়ো শিমিজু ও প্যারা-অ্যাথলিট হাজিমু আশিদার হাত ধরে ওয়াটার প্যারেড সারে দুই ম্যাসকট৷ পরে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই ম্যাসকটের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় জাপানি নাগরিকদের৷