মুম্বই: তবে কী আশঙ্কা সত্যি করে ভেস্তেই যেতে চলেছে ২০২০ আইপিএল, সরকারিভাবে কোনও ঘোষণা না হলেও বোর্ড সূত্রে খবর অন্তত তেমনটাই। বিশ্ব মহামারী করোনার জেরে যে সংকটজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে আইপিএলের আকাশে অনিশ্চয়তার কালো মেঘ আরও পুঞ্জীভূত হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি দিকে সমানে নজর রেখে চলেছে বোর্ড।

এরইমধ্যে শোনা যাচ্ছে চলতি মরশুমে নিতান্ত আইপিএল আয়োজন সম্ভব না হলে পরের মরশুমে নতুন করে আর কোনও নিলাম হবে না। ২০২০ স্কোয়াড নিয়েই ২০২১ লড়াইয়ে নামবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। প্রাথমিকভাবে ২৯ মার্চ অর্থাৎ গতকাল ঢাকে কাঠি পড়ে যাওয়ার কথা ছিল আইপিএল ২০২০’র। কিন্তু করোনার জেরে বিশ্বজুড়ে স্তব্ধ ময়দান। দেশে এই মুহূর্তে ২১ দিনের লকডাউন। ১৫ এপ্রিল অবধি স্থগিত কোটিপতি লিগ। লকডাউন যদি দীর্ঘায়িত হয় তবে তো প্রশ্নই নেই, তা না হলেও লকডাউন ওঠার পর পরিস্থিতি বিচার করে আইপিএল আয়োজনের দিকে ঝুঁকতে চাইবেন না অনেকেই।

এমনকি আইসিসি’র পরবর্তীতে যা ট্যুর শিডিউলিং আছে, তাতে চলতি বছর আর কোনওভাবেই সম্ভব নয় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ। ২৫ মার্চ টেলিকনফারেন্সে বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও পরিস্থিতি বিচার করে বৈঠকে রাজি হয়নি ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। তবে খুব শীঘ্রই চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

কয়েকজন ক্রিকেটারকে ধরে রেখে বাকি ক্রিকেটারদের ২০২১ আইপিএল নিলামের জন্য রিলিজ দিয়ে দেওয়ার কথা ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর। কিন্তু এমন উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইপিএল সম্ভব না হলে একই স্কোয়াড ধরে রেখেই আগামী মরশুমে মাটে নামবে দলগুলি।

উল্লেখ্য, রবিবার যেহেতু শুরু হওয়ার কথা ছিল আইপিএল। তাই গতকাল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স তার অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে কল্পিত ধারাবিবরণী শুরু করেছিল টস দিয়ে। রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার সময় মুম্বই ইন্ডিয়ান্স টুইট করে ‘ওয়াংখেড়েতে এখন টসের সময়।’ যদিও সঙ্গে কান্নার ইমোজি জুড়ে দেওয়া হয়।