মুম্বই: ক্রমশ শক্তি পাকাচ্ছে সাইক্লোন নিসর্গ। মনে করা হচ্ছে বুধবার আছড়ে পড়বে মহারাষ্ট্র উপকূলে। শুধু মহারাষ্ট্রেই নয়, গুজরাট উপকূলেও ব্যাপক ধ্বংসলীলা চালাবে এই ঝড়। আগামী কয়েক ঘন্টার মধ্যেই গভীর নিম্নচাপ থেকে সাইক্লোনের চেহারা নেবে এই চেহারা।

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, প্রথমে উত্তরমুখী পড়ে অভিমুখ পরিবর্তন করে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। শেষ পর্যন্ত উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয় এটি মহারাষ্ট্রের রায়গর এর কাছে হরিহরেশ্বর ও দমনের মাঝে উপকূলে আছড়ে পড়বে। উপকূলে আছড়ে পড়ার সময় এই ঝড়ের গতিবেগ থাকতে পারে ১২৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উপকূলবর্তী এলাকা থেকে সরানো হচ্ছে মানুষজনকে।

সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, ইতিমধ্যে গুজরাত উপকূল থেকে ২০ হাজার মানুষকে সরানো হয়েছে। প্রাণহানি এড়াতে আরও মানুষজনকে সরানো হচ্ছে। তৈরি রয়েছেন কোস্ট গার্ড এবং ইন্ডিয়ান নেভি। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দলকেও তৈরি রাখা হয়েছে। সাইক্লোনের তাণ্ডব কিছুটা ঠান্ডা হলেই উদ্ধার কাজ শুরু হবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে সাইক্লোন নিসর্গের জন্য মুম্বই সহ একাধিক জেলার জন্য সতর্কতা জারি করা হয়েছে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, বুধবার সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়বে এই ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়।

কালেক্টর কৈলাশ সিন্দে জানিয়েছেন, মোট ৫৭৭টি মৎস্যজীবীদের বোট সমুদ্রে গিয়েছিল তবে সোমবার পর্যন্ত ৪৭৭টি ফিরে এসেছে তবে বাকীরা এখনও ফেরেনি বলেই জানা গিয়েছে। সেই কারণে যথেষ্ট চিন্তায় স্থানীয় প্রশাসন। কোস্ট গার্ডকে এই বিষয়ে ইতিমধ্যে সতর্ক করা হয়েছে।

গভীর সমুদ্রে থাকা মৎস্যজীবীদের উদ্ধার করতে বলা হয়েছে। সেই মতো আকাশ পথে এবং জলপথে চলছে নজরদারি। পার্শ্ববর্তী থানে এলাকায় এক কোম্পানি এনডিআরএফ পৌঁছে গিয়েছে। উত্তান এলাকায় সবচেয়ে বেশি মৎস্যজীবীদের বসবাস সেখানেও রয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। মোট দশ কোম্পানি এনডিআরএফ মোতায়েন করা হয়েছে, ছয়’টি মজুত রাখা হয়েছে।

তবে ইতিমধ্যেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র, চিকিৎসাধীন বহু কোভীড রোগী। তাই সাইক্লোনের সময় অন্যান্য জায়গায় লোডশেডিং হলেও হাসপাতালগুলি যাতে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন না হয় সেদিকেও নজর দেওয়া হচ্ছে। আরব সাগরে তৈরি হওয়া ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের দিকে নজর দিয়ে মুম্বই সিটি, মুম্বই শহরতলি জেলা, থানে, পালঘর, রায়গড়, রত্নগিরি এবং সিন্ধু দুর্গে জারি করা হয়েছে সতর্কতা, তেমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধভ ঠাকরে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।