নয়াদিল্লি: গত কয়েকদিন ধরে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে তৈরি হওয়া অশান্তির পরিস্থিতি গত মঙ্গলবার থেকে নতুন মোড় নেয়। পাকিস্তানে ভারতীয় বায়ুসেনা এয়ার স্ট্রাইক চালানোর পর বৃহস্পতিবারই ভারতের সীমানা পেরিয়ে ঢোকার চেষ্টা করে পাক বিমান পাকিস্তান। সেই বিমান গুলি করে নামায় ভারত। সেই ছবিও ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে।

সূত্রের খবর, মোট ২০টি পাক বিমান ভারতের দিকে এগিয়ে আসছিল। এর মধ্যে কয়েকটি সীমান্তে পেরিয়ে ভারতের আকাশে চলে আসে।

NDTV-তে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তানের ওই ২০টি জেটের মধ্যে ছিল আটটি F-16, চারটি Mirage-3, চারটি JF-17 ফাইটার জেট। এছাড়া ওই বিমানগুলিতে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য ছিল আরও কয়েকটি বিমান। ঠিক সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে ভারতীয় সীমান্তের ১০ কিলোমিটার ভিতরে পাক বিমান ঢুকে পড়ে।

এরপরই তাড়া করতে ছুটে যায় আটটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান। এর মধ্যে ছিল চারটি Sukhoi 30, দুটি Mirage 2000 ও দুটি MiG 21.

এইভাবে তাড়া করতে গিয়েই লাইন অফ কন্ট্রোল পেরিয়ে যায় ভারতীয় বায়ুসেনার একটি বিমান। সেই বিমানের পাইলট উইং কমান্ডার অভিনন্দন ভার্তামানকে বন্দি করে পাকিস্তান। ইতিমধ্যেই তাঁকে মুক্তি দেওয়ার কথা জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাকিস্তানি ফাইটার জেটের উপস্থিতির কথা জেনে R-73 এয়ার টু এয়ার মিসাইল ছোঁড়েন তিনি। পাকিস্তানের F-16 থেকেও ছুটে আসে দুটি মিসাইল। এর মধ্যে একটি ছিল মিডিয়াম রেঞ্জের এয়ার টু এয়ার মিসাইল। অন্য মিসাইলটি লক্ষ্যে ব্যর্থ হয়।

এই অবস্থায় মিগ বিমানটি ভেঙে পড়তেই উইং কমান্ডার বেরিয়ে যান বিমান থেকে। পাক সেনার হাতে ধরা পড়ে যান তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা