মুম্বই: মহারাষ্ট্রের একটি রাসায়নিক কারখানায় ভয়াবহ আগুনে মৃত ২০ শ্রমিক। জখম শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় ২২। ঠিক কী কারনে কারখানায় আগুন লাগল সেই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার মহারাষ্ট্রের ধুলের শিরপুরের একটি রাসায়নিক কারখানায়।

কারখানার তরফে জানা গিয়েছে, এখনো পর্যন্ত প্রায় ৭০ জন শ্রমিক আটকে রয়েছে ভিতরে। তবে তাঁদের উদ্ধার কাজে নামানো হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। এছাড়াও কারখানার চারপাশে মোতায়েন করা হয়েছে বিপর্যয়য় মোকাবিলা বাহিনীকে। জোরকদমে চলছে উদ্ধার কাজ।

আরও পড়ুন : বিজেপির ভয়ে দিদি ভোট করাচ্ছেন না দিদি, তোপ দিলীপের

প্রাথমিক খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে, মহারাষ্ট্র শিল্পউন্নয়ন নিগমের ভিতরেই রয়েছে কারখানাটি। স্থানীয় সূত্রে খবর, প্রবল বিস্ফোরণের আওয়াজে পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলিও কেঁপে উঠে। ঘটনাস্থলে আগুন নেভাতে খবর দেওয়া হয় দমকল বাহিনীকে। কারখানার সূত্রে জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণের পরে কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা চত্বর। অতিরিক্ত বিষাক্ত ধোঁয়ার ফলে গ্রামবাসীরা রীতিমত সমস্যায়৷

পুলিশ সূত্রে খবর, শহর থেকে অনেক দূরে কারখানাটি অবস্থিত হওয়ায় গ্রামে শুধু স্থানীয় বাসিন্দারা থাকেন না, তাঁদের সঙ্গে বাস করেন দূর থেকে পরিবার নিয়ে আসা কারখানার বেশিরভাগ শ্রমিকও। যারা বিস্ফোরণে জখম হয়েছে তাঁদের মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন : ২৮ টি দেশের মধ্যে ৯ নম্বর সুখী দেশ ভারত, বলছে রিপোর্ট

বিস্ফোরণে জখমদের চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে উপ জেলা হাসপাতালে এবং যাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক তাঁদের ভরতি করা হয়েছে মহারাষ্ট্রের একটি বেসরকারি হাসপাতালে।

ঠিক কী ভাবে এই বিস্ফোরণ ঘটল সেই নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে, এবং কারখানার প্রকৃত মালিক কে তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। এছাড়াও ওই রাসায়নিক কারখানার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও ইতিমধ্যে প্রশ্নও উঠেছে।