শ্রীনগর : শনিবার সকাল থেকেই গুলির লড়াই চলছিল। তারই মাঝে সাফল্য পেল সেনা। ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে উত্তর কাশ্মীরের নৌগামে দুই জঙ্গিকে নিকেশ করা গিয়েছে।

শনিবার সকালে বারামুল্লার নৌগাম সেক্টরে সন্দেহজনক গতিবিধি লক্ষ্য করে সেনা। সেইসময় এলাকা জুড়ে সেনা টহলদারি চলছিল। তখনই সন্দেহ হওয়ায় সেনা তল্লাশি শুরু করে। আচমকাই শুরু হয় গুলির লড়াই। প্রত্যুত্তর দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনীও।

সেনার এক মুখপাত্র জানান, দুই জঙ্গি ঘটনাস্থলেই খতম হয়। উদ্ধার করা হয়েছে দুটি এ কে ৪৭ রাইফেল। এদের সঙ্গে আরও কেউ ছিল কীনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে, পাক নিয়ন্ত্রণ রেখা দিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশে খামতি নেই। সেনার দাবি জঙ্গি অনুপ্রবেশ ঘটাতেই সীমান্ত অশান্ত করে রেখেছে পাক সেনা। এর আগে জানা যায়, এবার কানাডায় বসে ভারতে বড়সড় সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানোর পরিকল্পনা চালাচ্ছে পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই। এব্যাপারে খলিস্তানী আন্দোলনকারীদের সঙ্গে জুটিয়েছে আইএসআই। সম্প্রতি কানাডার এক নামী সংবাদপত্রে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে। যদিও কেন্দ্রের তরফে এবিষয়ে স্পষ্ট করে কোনও তথ্য জানানো হয়নি।

এবার সূদূর কানাডায় বসে ভারতে সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানো ছক কষছে পাকিস্তান। পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই সন্ত্রাসবাদী এই কার্যকলাপের বীজ বুনছে কানাডায় বসে। কানাডার দুই শিখ যুবক এব্যাপারে আইএসআইকে সাহায্য করছে বলে জানা গিয়েছে।

কানাডায় থাকেন প্রভাকর সিং ও ভগৎ ব্রার। বেশ কয়েকবছর ধরে কানাডায় থেকে খলিস্তানী আন্দোলনের জন্য টাকা ও অন্য সাহায্য জোগাড়ের চেষ্টা করছে দু’জন।

এদের সঙ্গেই কানাডায় যোগাযোগ হয় পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর। তারপর থেকেই খলিস্তানী আন্দোলনকে উসকানি দিতে থাকে আইএসআই।

দুই শিখ যুবকের সাহায্যেই এবার ভারতে বড়সড় কোনও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের পরিকল্পনা করেছে পাকিস্তান। তবে এব্যাপারে তথ্য মিললেও, কেন্দ্রের তরফে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ