বাগদাদ: বুধবার গভীর রাতে পর প্র দুটি মিসাইল আছড়ে পড়ল ইরাকের রাজধানী বাগদাদের গ্রিন জোনে। হাই সিকিউরিটি এলাকা, যেখানে মার্কিন সহ অন্য দেশের দূতাবাসগুলি রয়েছে, সেখানে এই হামলা চালানো হয়।

মার্কিন সেনা ঘাঁটি লক্ষ্য করে ইরানের মিসাইল ছোঁড়ার একদন পরেই ঘটল ঘটনা। বাগদাদ এলাকার মানুষ দুটি তীব্র বিস্ফোরণের শব্ধ শুনতে পান, এবং বুঝতে পারেন ফের একবার হামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ইরাকের সেনা ঘাঁটি লক্ষ্য করে ১৫টি মিসাইল ছুঁড়েছে ইরান। তাঁরা জানয় যে ওই মিসাইল হামলায় ৮০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ইরানের সংবাদমাধ্যমে ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ডের এক উচ্চপদস্থ আফিসার বলেছেন, ৮০ জন ‘আমেরিকান টেররিস্ট’-কে মারা হয়েছে ওই মিসাইল হামলায়।

যদিও ইরানের এ দাবিকে ফুতকারে উড়িয়ে দিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প বলেন, কোনও মার্কিন সেনার মৃত্যু হয়নি। ন্যুনতম ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমেরিকার স্থানীয় সময় সকাল ১১ টায় হোয়াইট হাউসে বিবৃতি দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, আমেরিকা যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত।

এদিন ইরানের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ইরানের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হোক। পরমাণু যুদ্ধের পথে যাতে ইরান না যায়, সেই বার্তা দেন তিনি। ইরান কোনোদিনই পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। উপরি নিষেধাজ্ঞা জারি হবে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব