হায়দরাবাদ: বিমান উড়ানের প্রশিক্ষণ চলছিল। তার মাঝেই ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। মাঝ আকাশেই ভেঙে পড়ল বিমান। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হল শিক্ষানবীশ দুই বিমান চালকের। রবিবার বিকেলে এই দুর্ঘটনা ঘটে তেলেঙ্গানার ভিকারাবাদ জেলার সুলতানপুর গ্রামে।

এই বিমানটি একটি চাষের জমির ওপর ভেঙে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে আগুন ধরে যায় তাতে। বিমান চালকরা কেউই বেঁচে ছিলেন না বলে দাবি। তবে কী কারণে বিমানটি ভেঙে পড়, তা এখনও জানা যায়নি। বিমানটিতে একজন পুরুষ ও এক মহিলা পাইলট ছিলেন। পুরুষ পাইলটের পরিচয় জানা গিয়েছে। মৃত নি। নাম প্রকাশ বিশাল। তবে মহিলা পাইলটের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

রবিবার উড়ানের কিছু সময় পরেই বেগমপেট বিমানবন্দরের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় দুর্ঘটনাগ্রস্থ বিমানটির। হায়দরাবাদ থেকে মাত্র ১০০ কিমি দূরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সূত্রের খবর, বিমান ভেঙে পড়ার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যায় ভিকারাবাদ পুলিশ। বিমানের ধংস্বাবশেষ থেকে দুই পাইলটের দেহ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানাচ্ছে, ভারি বৃষ্টির জন্য বেগমপেট বিমানবন্দরের সঙ্গে বিমানের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। ঝোড়ো হাওয়ায় ও বৃষ্টিতে ইঞ্জিনের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েই এই দুর্ঘটনা বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনা ঘটার আগে প্রায় ৪৫ মিনিট উড়ানের প্রশিক্ষণ চালায় বিমানের পাইলটরা। বিমানটি সুরক্ষিত ভাবে অবতরণের চেষ্টা চালানো হলেও, তা সম্ভব হয়নি বলে খবর। দুর্ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে পুলিশ। চলছে তল্লাশি ও তদন্ত।

ফেব্রুয়ারি মাসেও এই ধরণের বিমান দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকে বেঙ্গালুরু। মাঝ আকাশে মুখোমুখি বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় এয়ার ফোর্স পাইলটের। দুটি বিমান ভেঙে পড়ার পর দুই পাইলট বেঁচে গেলেও, নিহত হন এক পাইলট। প্রত্যেকেই বিমান থেকে বেরিয়ে আসতে পেরেছিলেন। আহত অবস্থায় তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, সেখানেই একজনের মৃত্যু হয়। ‘এরো ইন্ডিয়া’ শো-এর আগেই ঘটে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা। মুখোমুখি সংঘর্ষে ভেঙে পড়ে দুই এয়ারক্রাফট।