ফাইল ছবি৷

জম্মু: ফের রাতভোর উত্তপ্ত পাক সীমান্ত। ভারতীয় সেনার হাতে নিকেশ লস্কর-ই-তৈবার দুই জঙ্গি। দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলার সঙ্গম এলাকায় এনকাউন্টার চলাকালীন ভারতীয় সেনাবাহিনীর গুলিতে মৃত্যু হল ওই দুই জঙ্গির।

শুক্রবার মাঝরাতের পর থেকেই জঙ্গিদের সঙ্গে এই গুলির লড়াই শুরু হয়। ভোর ৫ টা নাগাদ সূত্র মারফৎ খবর পাওয়া যায়, গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হয়েছে দুই জঙ্গির। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহদের মধ্যে এক জঙ্গির নাম ফুরকান, তাঁর বাড়ি স্থানীয় এলাকাতেই।

জম্মু কাশ্মীরের পুলিশ ইন্সপেক্টর বিজয় কুমার বলেন, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় জঙ্গিদের খোঁজে এই তল্লাশি শুরু হয়। সেখানেই গুলি বিনিময়ে লড়াইয়ে মৃত্যু হয় ওই দুই জঙ্গির।

এর আগে চলতি সপ্তাহেই বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় তিন হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি। সূত্র মারফত ত্রালের শেরাবাদে জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পায় নিরাপত্তা বাহিনী। পুলিশের সঙ্গে যৌথভাবে সেখানে অভিযানে যায় সেনা। সেনা-পুলিশ যেতেইএলাকায় আগে থেকে লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। জঙ্গিদের পালটা জবাব দিতে শুরু করে সেনা। সেনার গুলিতে ঘটনাস্থলেই তিন জঙ্গি নিহত হয়।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত তিন জঙ্গিই স্থানীয় বাসিন্দা। তাদের নাম জেহাঙ্গীর ওয়ানি, রাজা মকবুল ও সাদাত। ওয়ানি ও মকবুলেরর বাড়ি ত্রালে। সাদাতের বাড়ি অনন্তনাগের বীজবেহরায়। জঙ্গিঘাঁটি থেকে প্রচুর পরিমাণ বিস্ফোরকও উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধার করা হয় বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্রও।