নিউ ইয়র্ক: আফ্রিকা মহাদেশের বাইরে সবথেকে পুরনো নমুনার সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। গ্রিসে পাওয়া একটি মাথার খুলিকে ২ লক্ষ ১০ হাজার বছরের পুরনো বলে উল্লেখ করা হচ্ছে।

এই আবিষ্কার আফ্রিকা থেকে আধুনিক মানুষের প্রথম দিকের অভিবাসনেরও নজির বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আজকের জীবিত মানুষের ডিএনএ-তে যাদের কোনো অস্তিত্বই নেই।

বিজ্ঞান পত্রিকা নেচার গবেষকদের নতুন এই আবিষ্কারের খবর প্রকাশ করেছে।

১৯৭০-র দশকে গবেষকরা গ্রিসের আপিদিমা গুহায় দুটো গুরুত্বপূর্ণ জীবাশ্ম খুজে পান ।এর একটি অত্যন্ত বিকৃত ছিল, অন্যটি অসম্পূর্ণ। কম্পিউটার টোমোগ্রাফি স্ক্যানিং ও ইউরেনিয়াম-সিরিজ ডেটিংয়ের মাধ্যমে গবেষকরা এ জীবাশ্ম দুটোর রহস্য উদঘাটন করেন।

তুলনামূলক পূর্ণাঙ্গ খুলিটি জীবাশ্মটি একজন নিয়ান্ডারথাল মানবের বলে কিছু প্রমাণ মিলেছে। কিন্তু অন্যটি আধুনিক মানুষের মাথার খুলি পরীক্ষা করলে যে ধরনের নমুনা পাওয়া যায়, তেমন পেছনদিকে গোলাকৃতির পরিষ্কার বৈশিষ্ট্য পাওয়া যায়। তাই এটিকে আধুনিক হোমো স্যাপিয়েন্সের সবচেয়ে পুরনো নমুনা বলে মনে করছেন তারা।

ইউরোপ ও এশিয়ায় আধুনিক মানুষের বিস্তৃতি কালে এই পূর্বপুরুষরা তাদের সঙ্গে লড়াইরত নিয়ান্ডারথাল ও ডেনিসোভান প্রজাতিকে ইউরোপ ও এশিয়া থেকে নিশ্চিহ্ন করেছিলো।

মানুষের উৎপত্তি আফ্রিকা মহাদেশে বলে ধারণা করা হয়। ৬০ হাজার বছর আগে বর্তমান মানুষের পূর্বপুরুষরা আফ্রিকা মহাদেশের বাইরে ছড়িয়ে পড়েছিল।