চণ্ডীগড়: বিশাল পরিমাণ মদের কোনও হিসেব পাওয়া যাচ্ছে না, তাও তিন সদস্যের বিশেষ তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হরিয়ানা সরকার।

গোডাউন থেকে এত স্টক কোথায় গেল তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। প্রায় ২ লাখের বেশি মদের বোতল পাওয়া যাচ্ছে না, এই প্রসঙ্গে হরিয়ানার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল ভিজ জানিয়েছেন, এই বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে এবং একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

সাময়িকভাবে একটি গোডাউনে বিশাল সংখ্যার ওই মদের বোতলের স্টক রাখা হয়েছিল, সেখান থেকেই চুরি গিয়েছে, এমনটাই জানিয়েছেন অনিল ভিজ।

আরও জানা গিয়েছে, সোনিপাতের খরখোদা-মাতিনডু রোডের গোডাউনে সাময়িকভাবে রাখা মদের বোতল চুরি গিয়েছে। মে মাসের ৫ তারিখ ডিজিপি এই বিষয়টি আমার নজরে আনেন”।

বিষয়টি চিন্তার এবং মনে করা হচ্ছে ওই সময়ে অন-ডিউটি কোনও কর্মীর সাহা্য্য ছাড়া এমন কাজ সম্ভব নয়। সেই ভিত্তিতেই এফআইআর দায়ের করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

মে মাসের ৫ তারিখের আগে অবধি মদ বিক্রির কোনও অনুমতি ছিল না। মে মাসের ৬ তারিখ থেকে হরিয়ানায় মদ বিক্রি শুরু হয়েছে।

আশঙ্কাপ্রকাশ করে অনিল জিজ জানিয়েছেন, মদ বিক্রি যখগ্ন বন্ধ ছিল সেই সময়ে মাফিয়ারা আবগারি কর্মীদের উসকানি দিয়ে এমন কাজ করিয়েছে।

তিন সদস্যের ওই বিশেষ তদন্তকারি দল ২০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে। মঙ্গলবার, উপ মুখ্যমন্ত্রী দুষ্যন্ত চৌতালা যিনি আবগারি দফতরের সঙ্গে যুক্ত জানিয়েছেন, তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

তিন সদস্যের ওই দলে রয়েছেন, আইএএস অফিসার, পুলিশ দফতরের একজন এডিজিপি র‍্যাঙ্কের অফিসার এবং আবগাড়ি দফতর থেকে একজন সিনিয়র অফিসার যারা তদন্তের পরে ২০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা করবেন।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব