ফাইল ছবি

কাশ্মীর: ফের অশান্ত কাশ্মীর। আবার আইইডি বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল ভূস্বর্গ। বিস্ফোরণের জেরে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪ জন। ঘটনায় ফের আতঙ্কের ছায়া নেমেছে উপত্যকা জুড়ে। জানা গিয়েছে, দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলার হাকোরা বোদাসগামে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, ‘ব্যাক টু ভিলেজ’ নামে একটি সরকারি অনুষ্ঠান চলাকালীন এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

যে ৪ জন আহত হয় তাঁদের দ্রুত উদ্ধার করে অনন্তনাগ জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অন্যদিকে আজ কাশ্মীরে আরও একটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার বিকেলে কাশ্মীর ইউনিভার্সিটির কাছে গ্রেনেড হামলা হয়। এই হামলায় আহত হয়েছেন দুই জন সাধারণ মানুষ। খবর মঙ্গলবার বিকেল তিনটে নাগাদ এই হামলা হয়।

উল্লেখ্য, ৩৭০ ধারা রদের পর ধীরে ধীরে সব পরিষেবা স্বাভাবিক হলেও ভূস্বর্গে সন্ত্রাস জিইয়ে রাখতে একের পর এক নাশকতা চালিয়ে গিয়েছে পাক মদতপুষ্ট বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠন।

প্রসঙ্গত, নভেম্বরের শুরুতে নাশকতা চালানোর জন্য জঙ্গি অনুপ্রবেশ হতে পারে বলে কেন্দ্রকে সতর্ক করেছিল ভারতীয় গোয়েন্দা বিভাগ। সেই তথ্য পেয়েই কাশ্মীরের বহু অঞ্চলে চিরুনি তল্লাশি চালাতে শুরু করে সিআরপিএফ এবং জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের যৌথ দল। এই অভিযান চলাকালীনই সেনার সঙ্গে গুলি-যুদ্ধে নিহত হয় কাশ্মীরের আলকায়দা শাখার প্রধান হামিদ লেলহারি-সহ তিন জন। চলতি মাসের ৪ তারিখ কাশ্মীরের প্রাণকেন্দ্র লালচকে গ্রেনেড হামলা চালায় জঙ্গিরা।

অন্যদিকে, দেশের নিরাপত্তাকে সুদৃঢ় করতে আরও একধাপ এগোল ভারতীয় সেনা। পাকিস্তান লাগোয়া নিয়ন্ত্রণ রেখা অঞ্চলে স্পাইক অ্যান্টি ট্যাঙ্ক মিসাইল ব্যবহার শুরু হবে বলেই জানা গিয়েছে সেনা সূত্রে।