রাঁচি: একটি নয়, দুটি সাইক্লোন তৈরি হচ্ছে ঝাড়খণ্ডের উপর। আর তার জেরে ওড়িশার উত্তর উপকূলে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। শনিবার থেকে পরপর তিনদিন প্রবল বৃষ্টি হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে মৌসম ভবন।

ভুবনেশ্বরের এক বিশেষজ্ঞ শক্তিকান্ত জানিয়েছেন, ঝাড়খণ্ড আর ওড়িশার সংযোগস্থলে দুটি ঘূর্ণীঝড় তৈরি হয়েছে। তার জেরে শুধুমাত্র বৃষ্টিই নয়, ওড়িশা জুড়ে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হবে। মূলত ময়ূরভঞ্জ, কেন্দুঝার, সুন্দরগড়, সম্বলপুর, ঝাড়সুগুড়া, খুরদা, কটক, বালাসোর, ভদ্রক, নয়াগড়ের মত জেলাগুলিতে হবে বৃষ্টি।

এদিকে, শনিবার সপ্তমীতে ভারী বৃষ্টিতে ভিজেছে কলকাতাও।

কিন্তু দুপুর শেষে বিকাল হতেই আকাশের মুখ কালো করতে দেখে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে শহরবাসী। আর আমজনতার উদ্বেগকে সত্যি করে শনিবার বিকাল সাড়ে চারটে-পাঁচটা থেকে প্রবল বজ্র বিদ্যুৎ সহ ভারী বর্ষণে ভিজে উঠে তিলোত্তমা। স্বাভাবিক ভাবেই পূর্বাভাস মত অকাল শ্রাবন মানুষের আনন্দে জল ঢেলে দিতে সক্ষম হয়েছে।

জানা গিয়েছে, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর তৈরি হওয়া একটি নিম্মচাপের কারনে শনিবার থেকে ফের নতুন করে বৃষ্টিতে ভিজবে কলকাতা শহর এবং শহরতলি। তবে ঠিক কবে এই বৃষ্টি কমবে সেই ব্যাপারে নিশ্চিত ভাবে কিছুই জানা যায়নি আবহাওয়া অফিসের তরফে। তবে নিম্মচাপ জনিত কারনে এই বৃষ্টি আগামীকাল অর্থাৎ অষ্টমীতেও চলবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস। নবমী দশমীতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে কিনা সেই বিষয়ে আগে থেকে এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ