মালদহ: দেশ থেকে কিছুতেই উপড়ে ফেলা যাচ্ছে না অন্ধ বিশ্বাসকে। একেবারে রন্ধ্রে রন্ধ্রে গেঁথে রয়েছে কুসংস্কার। এবার মালদহতে সেই অন্ধ কুসংস্কারের বলি ২ নিষ্পাপ শিশু। এ ঘটনা ঘটেছে মালদার গাজোল থানার কদমতলি এলাকায়।

সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, মাঠে খেলতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল ৪ শিশু। অভিযোগ, অসুস্থ অবস্থায় তাঁরা বাড়ি এলেও ডাক্তার ডাকার নামগন্ধ করেনি তাঁর পরিবার। বরং শিশুদের সুস্থ করতে ওঝা ডেকে ২ ঘণ্টা ধরে চলে ঝাড়ফুঁক। আর এর চরম মূল্য দিতে হল দুই শিশুকে।

ঝাড়ফুঁক চলাকালীনই এলিয়ে পড়ে এক শিশু। এরপরেই তড়িঘড়ি তাঁদের নিয়ে রওনা দেওয়া হয় মালদা মেডিক্যাল কলেজে। কিন্তু ততক্ষণে দেরী হয়ে গিয়েছে। রাস্তাতেই মৃত্যু হয় দুই নিষ্পাপ শিশুর। বাকি দুইজন মালদা মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

প্রাথমিক ভাবে অনুমান মাঠে খেলার সময় হয়তো কোনও বিষ ফল খেয়ে ফেলেছিল ওই চার খুদে। আর তা থেকে বিষক্রিয়া হয়েই এই ঘটনা ঘটে। চিকিৎসকদের দাবি, সময় মত আনা হলে হয়তো বাঁচানো সম্ভব ছিল ওই দু’জনকে।

ঘটনায় ফের একবার বেয়াব্রু হয়ে পড়েছে সমাজের অন্ধকার দিকটা। প্রত্যন্ত অঞ্চলে মানুষ যে আজও কত পিছিয়ে আছে, তাঁর জ্বলজ্যান্ত প্রমাণ এই ঘটনা। মর্মান্তিক এই খবরে রীতিমতো ক্ষুব্ধ তৃণমূল বিধায়ক দিপালী বিশ্বাস। তিনি দাবি করেন, হাসপাতালে নিয়ে আসাতে দেরি করার কারণেই মৃত্যু হয়েছে ওই দুই শিশুর। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

সপ্তম পর্বের দশভূজা লুভা নাহিদ চৌধুরী।