দেরাদুন: দীর্ঘ ২০ বছর ধরে অবৈধ উপায়ে ভারতে থাকার অপরাধে গ্রেফতার করা হল দুই বাংলাদেশি নাগরিককে। বৃহস্পতিবার তাদের উত্তরাখন্ড পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

বাংলাদেশ থেকে অবৈধ উপায়ে ভারতে প্রবেশ নতুন কিছু নয়। বহু মানুষ নিয়মিত এই জালিয়াতি করে ভারতে আসে। অনেকে রুটিরুজির জন্যেও অবৈধ উপায়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে আসে। কাজ মিটিয়ে আবার চলেও যায়।

 

কিন্তু এই ঘটনা একটু আলাদা। জাল পাসপোর্ট নিয়ে ভারতে এসে কাটিয়ে দিয়েছে দুই দশক। যদিও শেষরক্ষা হয়নি। ধরা পড়ে গিয়েছে পুলিশের হাতে। ধৃতদের থেকে ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড এবং আধার কার্ড উদ্ধার হেয়ছে। যদিও সেই সবকিছুই জাল বলে জানিয়েছে ওই রাজ্যের পুলিশ।

ধৃতদের নাম হল নজরুল ইসলাম এবং সৈফুল মহম্মদ। তাদের আদি বাড়ি বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলায়। প্রায় ২০ বছর আগে তারা জাল চোরাপথে ভারতে আসে কাজের খোঁজে। পরে ফিরেও গিয়েছিল। এই ভাবে কয়েকবার যাতায়াত করেছে তারা। তবে শেষ ১৫ বছরে নিজের দেশে ফেরেনি। এদেশে বসেই বানিয়ে ফেলেছে জাল পাসপোর্ট, ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড এবং আধার কার্ড।

ফাইল ছবি

ধৃতেরা জেরায় নিজেদের বাংলাদেশের নাগিরিক বলে স্বীকার করে নিয়েছে। একই সঙ্গে অবৈধ উপায়ে ভারতে প্রবেশ এবং জাল পরিচপত্র তৈরির বিষয়টিও স্বীকার করে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন উত্তরাখণ্ডের পুলিশকর্তারা। ধৃতদের বিরুদ্ধে ফরেনার অ্যাক্ট ১৯৪৬ এবং পাসপোর্ট আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্যাটেল নগর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সূর্‍্য ভূষণ নেগি।