শ্রীনগর: পেশ করা গোয়েন্দা রিপোর্টে হামলার আশঙ্কা করা হয়েছিল আগেই৷ নিরাপত্তার ব্যবস্থাও ছিল কঠোর৷ কিন্তু তারপরেও অমরনাথ যাত্রীদের উপর হল জঙ্গি হামলা৷ জানা গিয়েছে, দুটি পৃথক স্থানে হয়েছে জঙ্গি হামলা৷ সোমবার সন্ধ্যায় অনন্তনাগ জেলার পুলিশ পার্টিতে হামলা চালায় জঙ্গিদের একটি দল৷

তারপরে হামলা হয় কাছের হাইওয়েতে৷ পাল্টা উত্তর দেয় ভারতীয় সেনা ও কাশ্মীর পুলিশ৷ দু’পক্ষের মধ্যে গুলির লড়াইয়ের মাঝে পড়ে যায় অমরনাথ যাত্রী ভর্তি একটি বাস৷ সূত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে সাত অমরনাথ যাত্রীর, গুরুতর জখম অনেক৷ তাদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে কাছের হাসপাতালে৷ এখনও চলছে দু’পক্ষের মধ্যে গুলির লড়াই৷

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, সেখানের অবস্থা বেশ থমথমে৷ অমরনাথ যাত্রা শুরুর আগেই পেশ করা গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছিল, অমরনাথ যাত্রায় আগত তীর্থযাত্রী এবং ১০০জন পুলিশের উপর যেকোনও মুহূর্তে আক্রমণ চালাতে পারে জঙ্গিরা৷ তাদের মূল লক্ষ্য হিজবুল কমান্ডর বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর প্রতিশোধ নেওয়া৷ এমনকি ২০০০-এর ভয়াবহ হামলার কথা উল্লেখ করে হুমকি দিয়েছিল জঙ্গিরা৷ সেই হুমকিই সত্যি করে সোমবার রাতে হামলা চালাল জঙ্গিরা৷

গোয়েন্দা রিপোর্ট জমা পড়ার পরেই নড়েচড়ে বসেছিল প্রশাসন৷ বাড়ান হয়েছিল যাত্রীদের নিরাপত্তা৷ দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে রাজ্যের আইজিপি মুনির খান চিঠি লিখেছিলেন সেনাবাহিনী, সিআরপিএফ-কে৷ সেই চিঠিটিতে লেখা আছে জঙ্গিরা বড়সড় নাশকতার পরিকল্পনা করছে৷ তাদের লক্ষ্য শতাধিক তীর্থযাত্রীকে খুন করা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।