নয়াদিল্লি: ফেব্রুয়ারি প্রায় শেষ। রবিবার থেকেই মার্চের শুরু। এরই মধ্যে ব্যাংক গ্রাহকদের জন্য বিশেষ খবর। মার্চ মাসে ১৯ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক। মার্চে শনি, রবি সহ মোট ছুটির দিন থাকছে ১৬ টি। এছাড়াও রয়েছে ব্যাংক কর্মীদের স্ট্রাইক। সব মিলিয়ে আরও তিন দিন বেড়ে মোট ১৯ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক।

মার্চ ২০২০-তে ব্যাংক স্ট্রাইক- ২০২০-তে শুরু থেকেই প্রতি মাসেই স্ট্রাইক ডেকেছে ব্যাংক কর্মীরা। জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারিতে স্ট্রাইক ডাকার পর মার্চেও এবার সেই রাস্তাতেই হাঁটছে তাঁরা। বেতন বৃদ্ধির দাবিতে তাঁরা এই স্ট্রাইক ডেকেছে। খুব সম্ভবত ১১ থেকে ১৩ মার্চ হতে চলেছে কর্মীদের স্ট্রাইক। তাঁরা ২৫% বেতন বৃদ্ধির দাবি তুলেছে।

এবার ১ নজরে দেখে নেওয়া যাক মার্চে ব্যাংকের ছুটির দিনগুলি-

জি বিজের খবর মোতাবেক, ১ মার্চ প্রথমেই পড়ছে ছুটির দিন রবিবার। তাঁর চারদিন পরেই ৫ মার্চ বুধবারে ওড়িশায় পঞ্চায়েতি রাজ ডে। তারপরের দিনই ৬ মার্চে মিজোরামে চপচার কূট উৎসব। একদিন পরেই ৮ মার্চ রবিবার।

দ্বিতীয় সপ্তাহে কর্মদিবসের শুরুর দিনই ৯ মার্চ উত্তরপ্রদেশে পালন হবে হজরত আলি বার্ষিকী। ওই দিন যোগীরাজ্যে বন্ধ থাকবে ব্যাংক। এরপরেই মঙ্গলবার ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে পালন করা হবে দোল পূর্ণিমা। ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গেও ওইদিন থাকছে ব্যাংক বন্ধ। এরপর ১৪ মার্চ দ্বিতীয় সপ্তাহের শনিবার হওয়ায় বন্ধ থাকবে ব্যাংক।

তৃতীয় সপ্তাহে ১৫ মার্চ রবিবার। ওই সপ্তাহে আর ছুটি নেই। ২২ মার্চ আবার রবিবার বন্ধ থাকবে ব্যাংক। তারপরের দিনই ২৩ মার্চ হরিয়ানায় পালিত হবে শহিদ ভগত সিং দিবস। ওই দিন হরিয়ানায় বন্ধ থাকবে। ২৫ মার্চে বুধবার কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, মণিপুর ও জুম্মু-কাশ্মীরে ব্যাংক বন্ধ থাকবে।

২৬ মার্চ গুজরাত, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ডে পালিত হবে ছেতি চন্দ বার্ষিকী। ফলে ওই দিনও বন্ধ থাকবে ব্যাংক। ২৭ মার্চ শুক্রবারে ঝাড়খণ্ডে পালিত হবে শারহুল উৎসব। ২৮ মার্চ মাসের চতুর্থ শনিবার হওয়ায় এমনই বন্ধ থাকবে ব্যাংক। ২৯ মার্চ রবিবার হওয়ায় সেদিনেও বন্ধ থাকবে ব্যাংক। সেই নিয়ে মোট ১৯ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ