বেজিং: অগস্ট মাসে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ লাফিয়ে বেড়েছে ১৮.৭ শতাংশ। গত বছরের অগস্ট মাসের তুলনায় এবছরে বেড়ে অংকটা দাড়িয়েছে ৮৪.১ বিলিয়ন ইউয়ান (১২.৩ বিলিয়ন ডলার)। আর জানুয়ারি থেকে অগাস্ট প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ গত বছরের একই সময়ের সাপেক্ষে ২.৬ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৬১৯.১৮ বিলিয়ন ইউয়ান।

বেজিংয়ে পদক্ষেপের ফলে চিনে মার্কিন সংস্থাসহ বিদেশি ব্যবসা বেড়েছে অস্থির পারিপার্শ্বিক পরিবেশ থাকা সত্ত্বেও। যেখানে হংকং ইস্যুতে আমেরিকার সঙ্গে চিনের বিবাদ চলছে এবং করোনাভাইরাস অতি মহামারীর আকার ধারণ করেছে চিনে।

এরইমধ্যে চিনের ব্যাংক ১.২৮ ট্রিলিয়ন ইউয়ান (১৮৭.২৫ মার্কিন ডলার) ঋণ দিয়েছে গত মাসে যা জুলাই মাসের থেকে ২৯ শতাংশ বেশি। পিপলস ব্যাংক অফ চায়না এমনই তথ্য প্রকাশ করেছে।

নীতিগতভাবে ঋণ দেওয়ার গতি ত্বরান্বিত করা হচ্ছে এ দেশের অর্থনীতিকে করোনা সংকট থেকে বেরিয়ে আসার জন্য সহায়তা করতে। পরের মাসগুলিতে এই ঋণ সহায়তার গতি আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। আগের মত লগ্নির চাহিদা ফিরিয়ে এনে অর্থনৈতিক দিক থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

দেখা যাচ্ছে চিন প্রথম কোনও অর্থনীতি যে করোনা সংকট কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে চলেছে। দেখা গিয়েছে প্রথম ত্রৈমাসিকে ৬.৮ শতাংশ সংকোচনের পর দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ৩.২ শতাংশ বৃদ্ধি ইঙ্গিত। বেজিং বেশ কিছু স্টিমুলাস ব্যবস্থা নিয়েছে যাতে অর্থনৈতিক ঘুরে দাঁড়ায়। যার মধ্যে রয়েছে স্পেশাল ট্রেজারি বন্ড, ঋণের জন্য সুদ কমানো ইত্যাদি।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।