মুজফফরনগর: পরীক্ষা কেন্দ্রে পিন ড্রপ সাইলেন্স। চলছে দ্বাদশ শ্রেনীর ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষা। হঠাৎ খাতা পেন ছেড়ে হতবম্ব হয়ে গেলেন পরীক্ষা কেন্দ্রের ছাত্রছাত্রীরা।

রবিবার উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের একটি পরীক্ষা কেন্দ্রে দ্বাদশ শ্রেনীর পরীক্ষা চলছিল। ভৌত বিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষা ছিল এদিন। এসটিএফ ( স্পেশাল টাস্ক ফোরস ) তাদের দায়িত্ব মত নজরদারি চালাচ্ছিলেন। হঠাৎ তাদের হাতে উঠে এল টুকলির চোতা। একজন দুজন নয় হাতেনাতে ধরা পড়লেন ১৭ জন।

তবে ছাত্রছাত্রী নয়, গণ টুকলি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়লেন পরীক্ষা কেন্দ্রের সুপারিন্টেনডেন্ট এবং ১৪ জন পরিদর্শক মিলিয়ে ১৭ জন। তাদের সকলকেই গ্রেফতার করা হয়েছে, জানা গেছে কর্তৃপক্ষের তরফে।

জেলাশাসক অজয় শঙ্কর পাণ্ডে এদিন সাংবাদিকদের বলেন, ১৭ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। সেই সঙ্গেই এক্সাম বোর্ডকেও জানানো হয়েছে যাতে রবিবারের পরীক্ষা বাতিল করে দেওয়া হয়। তিনি বলেন, এ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। মুখ্য উন্নয়ন আধিকারিক অর্চনা বর্মা সেই দায়িত্বে থাকবেন।

তিনি আরও বলেন, সেদিন পরীক্ষা কেন্দ্রে থাকা সমস্ত কর্মীদেরই বদলে দেওয়া হয়েছে। সেক্টর ম্যাজিসট্রেটের বিরুদ্ধে একটি তদন্তও করা হবে। তদন্ত করা হবে স্টেশন ম্যাজিসট্রেটের বিরুদ্ধেও।

জেলা শাসক বলেন, যারা সেদিন কপি করার বিষয়ে জড়িত ছিলেন, তাদের গ্যাংস্টার আইনের অধীনে নেওয়া হবে।

সুত্র বলছে, সমাধান করা উত্তর পত্র, পিস্তল, মোবাইল, পরীক্ষা সহায়কও উদ্ধার করা হয়েছে।