কাবুল: কমপক্ষে ১৬ জন তালিবান জঙ্গিকে খতম করল আফগান নিরাপত্তাকর্মীরা৷ ন্যাশনাল ডিরেক্টরেট অফ সিকিওরিটির কর্মীদের সঙ্গে রবিবার টানা সংঘর্ষ চলে তালিবান জঙ্গিদের৷

পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে৷ ১৬ জঙ্গি নিকেশ হওয়ার পাশাপাশি, আহত হয়েছে আরও ৯ জঙ্গি৷ স্থানীয় টোলো নিউজ সূত্রে খবর শনিবার গভীর রাত থেকে সংঘর্ষ শুরু হয়৷ গোপন জঙ্গি ঘাঁটি গুড়িয়ে ফেলে নিরাপত্তাকর্মীরা৷ তারপরেই শুরু হয় লড়াই৷

এর আগে, মে মাসে আফগান সেনার বিমান হানায় নিকেশ হয় ৪২ জন জঙ্গি। আফগানিস্তানের বিভিন্ন জায়গায় পৃথক পৃথক ভাবে বিমান হানা চালায় আফগান সেনা। এই বিমান হানায় খতম হয় আই এস ও তালিবান মিলিয়ে মোট ৪২ জন জঙ্গি।

গত চব্বিশ ঘন্টা একটানা বিমান হানা চালায় আফগান সেনা। আইএস ও তালিবানদের গোপন ঘাঁটি লক্ষ্য করে চলে এই হামলা। জঙ্গিদের মধ্যে ৭ জন তালিবান জঙ্গি খতম হয় ও আরও ৬জন গুরুতর ভাবে আহত বলে জানায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের সূত্র।

আফগান ন্যাশনাল আর্মি বা এএনএ এদিন হামলা চালায় হেলমন্ড প্রদেশের গরমসির, গ্রিসক, নাদ আলি জেলায়। এক বিবৃতিতে জানায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। বিমান হানায় দুটি জঙ্গি ঘাঁটি ও দুটি গাড়ি গুঁড়িয়ে দেয় আফগান সেনা বলে খবর।

উরুগজান প্রদেশের খাস উরুগজান জেলাতেও ১৫ জন জঙ্গির খতম হওয়ার খবর মেলে৷ আহত হয় আরও ১৬ জন। স্থানীয় সংবাদসংস্থা টোলো নিউজকে উদ্ধৃত করে এই তথ্য জানায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।
তৃতীয় বিমানহানাটি হয় জৌঝজান প্রদেশের দারজাব জেলায়। সেখানে ২০ জন আই এস জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়৷

এর আগে, ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে জঙ্গি দমনে বড়সড় সাফল্য পায় আফগানিস্তান সেনা। ২৪ ঘন্টায় আফগানিস্তানের ৮টি প্রদেশে সেনা অভিযানে কমপক্ষে ৭৬ জন জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়।
আফগান ন্যাশনাল ডিফেন্স ও সিকিওরিটি ফোর্সের অভিযানে এই জঙ্গিদের নিকেশ করা হয়। সেদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। ৭৬ জন জঙ্গির মধ্যে অন্তত, তিনজন তালিবান কমান্ডার ছিল বলে খবর। সেনা সূত্রে তাদের নামও জানা যায়।