নিউ ইয়র্ক: প্রতিনিয়তই মহাকাশে ঘোরাফেরা করছে কোনও না কোনও গ্রহাণু। পৃথিবীর আশপাশ দিয়ে চলে যাচ্ছে সেগুলি। তবে, সোমবার পৃথিবীর কানের পাশ দিয়ে বেরিয়ে যাবে একটা বেশ বড় আকারের গ্রহাণু। আকারে ‘স্ট্যাচু অফ লিবার্টি-র থেকেও লম্বা সেটি।

সোমবার রাত ঠিক ৯টা ৪০ মিনিটে পৃথিবীর পাশ দিয়ে যাবে ওই গ্রহাণু। এটির নাম 2019 VF1. এর ব্যাসার্ধ ১৫০ মিটার। পৃথিবীর পাশ দিয়ে যখন এই গ্রহাণু যাবে, তখন তার গতিবেগ হবে ৬১,৯৫৬ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।

আরও পড়ুন: কমিশনে বিজেপি, মমতাই সব করাচ্ছেন: বিস্ফোরক মন্তব্য মুকুলের

কিন্তু এত বেশি গতিতে যাওয়ার সময় কি এই গ্রহাণু মাধ্যাকর্ষণ শক্তির জেরে পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে পারে? না, এমন কোনও আশঙ্কার কারণ দেখছেন না বিজ্ঞানীরা। কারণ পৃথিবী থেকে ৫১ লক্ষ কিলোমিটার দূর দিয়ে যাবে গ্রহাণু। পৃথিবী ও চাঁদের মধ্যে যে দূরত্ব, তার থেকে ১৩ গুণ বেশি এই দূরত্ব, সুতরাং পৃথিবীবাসীর ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই।

এদিকে, গত কয়েকদিন ধরে বিদেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে এক ভয়ঙ্কর রিপোর্ট। যে রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, ডিসেম্বরেই এক বিরাট আকারের গ্রহাণু এগিয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। এমনকি সেই গ্রহাণুর ধাক্কা থেকে লুকোতে বাংকারে লুকিয়ে পড়া প্রয়োজন বলেও ওয়ার্নিং দিয়েছে কেউ কেউ।

আরও পড়ুন: ‘পুলিশ সুপারকে ফোনে হুমকি দিয়েছেন মমতা’, বিস্ফোরক অভিযোগ মুকুলের

একটি সংবাদমাধ্যমের হেডলাইনে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘ফুটবলের আকারের গ্রহাণু আছড়ে পড়তে পারে পৃথিবীতে।’ অন্য একটি হেডলাইনে বলা হয়েছে, ‘১৬৪ ফুটের একটি গ্রহাণু প্রবল আছড়ে পড়বে পৃথিবীর বুকে।’ এমনকি গ্রহাণুর আকার লন্ডনের থেকে বড় বলেও দাবি করা হয়েছে।

এই তথ্য একেবারে ভুল নয়। বলা ভালো, গ্রহাণু পৃথিবীতে আঘাত করতে পারত। কিন্তু সেই সম্ভাবনা এখন অনেকটাই কম। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, বিরাট আকারের গ্রহাণু আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা ৭০০০ ভাগের মধ্যে এক ভাগ অর্থাৎ সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে।