কোয়েটা: নাশকতায় আবারও রক্তাক্ত পাকিস্তান। শুক্রবার বালোচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটার একটি মসজিদে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। এতে কম করেও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। জখম প্রায় ২০ জন।

পাক সংবাদ মাধ্যম জানা গিয়েছে শুক্রবার কোয়েটার এই মসজিদে নমাজ পড়ার সময়ই এই বিস্ফোরণ হয়। স্থানীয় আইজি আবদুল রাজ্জাক চিমা জানিয়েছেন, নাশকতায় জঙ্গি যোগ স্পষ্ট। নিহতের মধ্যে রয়েছেন একজন সিনিয়র পুলিশ আধিকারিক৷ তবে মৃতদের মধ্যে অধিকাংশই সাধারণ নাগরিক৷ নিহতের সংখ্যা আরও বাড়বে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ কারণ আহতের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷

শুক্রবার মসজিদে এই বোমা বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট টেরর গ্রুপ৷ একটি সুইসাইড বোমা ছিল বলেও তাদের তরফে জানানো হয়েছে৷ পাকিস্তানের তরফে ১৫ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হলেও আইএস-এর তরফে এই বিস্ফোরণে ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে৷

বৃহস্পতিবার কোয়েটার একটি গাড়িতে বোমা বিস্ফোরণ হয়৷ যাতে দু’জন মারা যান এবং ১৪ জন আহত হয়েছে৷ শহরে রাস্তার উপর রাখা একটি মোটরবাইকে বিস্ফোরক রাখা ছিল৷ পাকিস্তানি তালিবান গোষ্ঠী এই বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছিল৷

পাকিস্তানে নাশকতা কোনও নতুন কিছু না। বারে বারে এই দেশ রক্তাক্ত হয়েছে। বালোচিস্তান প্রদেশটিও পাক সরকার বিরোধী সশস্ত্র বালোচ বিদ্রোহের কেন্দ্র। এখানেই আফগান তালিবান নেতা গোপন ডেরা রয়েছে৷ তবে সম্প্রতি কয়েক বছরে মিলিটারি অপারেশনের দ্বারা বালোচিস্তানের আইন-শৃঙ্খলার কিছুটা উন্নতি হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে৷