মুম্বই: ট্রেনের মাথায় উঠে সেলফি তুলতে গিয়েছিল। ভাবতে পারেনি এটাই শেষ সেলফি হবে বছর চোদ্দর শাহিলের। সেলফি তোলার সঙ্গে সঙ্গেই ট্রেনের ওভারহেডের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল তার। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বইয়ের নাহুর স্টেশনে। পুলিশ জানায়, মৃতের নাম শাহিল সি. ঈশ্বরকার (১৪)। মুম্বইয়ের সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল শাহিল।

জানা গিয়েছে, গত রবিবার বাবার কাছ থেকে একটি নতুন মোবাইল ফোন উপহার পেয়েছিল শাহিল। সেই মোবাইল ফোন নিয়েই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বন্ধুদের সঙ্গে বেড়াতে বেরোয় এবং ওই মোবাইলে সেলফি তোলার ইচ্ছা হয় শাহিলের। সেলফির জন্য সে বেছে নেয় নাহুর স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মালবাহী ট্রেনের ছাদ। বন্ধুরা না উঠলেও শাহিল একাই ট্রেনটির ছাদে উঠে পড়ে। খেয়াল করেনি তার মাথার উপর দিয়ে ২৫ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতের তার গিয়েছে। তারপর ট্রেনের ছাদে দাঁড়িয়ে মোবাইলে সেলফি ক্লিক করার সময়ই ট্রেনের ওই বিদ্যুৎবাহী তার শাহিলের মাথায় ঠেকে এবং সঙ্গে সঙ্গে আগুনের ঝলকানি শুরু হয়। কিছুক্ষণ এভাবে চলার পর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ট্রেনের ছাদ থেকে ছিটকে পড়ে শাহিল। ততক্ষণে তার শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে। তারপর স্টেশন আধিকারিকরা সঙ্গে সঙ্গে শাহিলকে রাজাওয়াদি হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালের চিকিৎসক শাহিলকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

রেল সূত্রের খবর, এই নিয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে চলতি বছরেই দু’জনের মৃত্যু হল। এর আগের ঘটনাটি ঘটে জানুয়ারিতে যোগেশ্বরী স্টেশনে। গণেশ কুমকুমবাটি নামে ১৬ বছরের এক কিশোর শাহিলের মতোই ট্রেনের মাথায় উঠে সেলফি তুলতে যায় এবং ২৫ হাজার ভোল্টের ট্রেনের ওভারহেড তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায়।