স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : সোমবার প্রকাশিত হল এবছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল। এদিন সকাল ১০ টায় বিদ্যাসাগর ভবনে এক সাংবাদিক বৈঠক করে মেধা তালিকায় থাকা সেরা ১০ জনের নাম ঘোষণা করেন সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস। তিনি জানান, এবছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সেরা দশের তালিকায় রয়েছে ১৩৭ জনের নাম। উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের ইতিহাসে যা নজির।

এবার ৪৯৮ নম্বর পেয়ে যুগ্মভাবে প্রথম হয়েছে দুই ছাত্র। বীরভূমের শোভন মণ্ডল এবং কোচবিহারের রাজর্ষি বর্মণ। এছাড়া মেধা তালিকায় রয়েছে ৬ জন দ্বিতীয়, ৪ জন তৃতীয়, ৬জন চতুর্থ, ১৪জন পঞ্চম, ১৬জন ষষ্ঠ, ১৪জন সপ্তম, ২৫জন অষ্টম, ২৪জন নবম এবং ২৬ জন দশম কৃতি ছাত্র-ছাত্রী।

২০১৫ থেকে ২০১৯ ধরে ৫ বছরের হিসেবে উচ্চ মাধ্যমিকে সফল পরীক্ষার্থীদের হার ছিল ৮২.৩৮ শতাংশ, ২০১৬ সালে ৮৩.৬৫, ২০১৭ সালে ৮৪.২০, ২০১৮ সালে তা ছিল ৮৩.৭৫ এবং এবছর সেই পাশের হার শতাংশের হিসেবে দাঁড়িয়েছে ৮৬.২৯ শতাংশ। তাছাড়া সংসদের এত বছরের ইতিহাসেও এবছরের তুলনায় সফল হওয়া ছাত্রছাত্রীদের হার শতাংশের বিচারে এবছরের চেয়ে বেশি নয়। সুতরাং শতাংশের হিসেবে এবছরের উচ্চ মাধ্যমিকে পাশের হার উচ্চ মাধ্যমিকের ইতিহাসে নজির। একথা এদিনের বৈঠকের প্রথমেই আনন্দের সঙ্গে সংবাদ মাধ্যমের সামনে তুলে ধরেন সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস।

এদিন সকাল সাড়ে দশটার মধ্যেই সমস্ত স্কুলে মার্কসিট ও শংসাপত্র পৌঁছে যাবে বলে জানান সংসদ সভাপতি। এবছর ৭৪ দিনের মাথায় ফলাফল প্রকাশ করল উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। পরীক্ষা শুরু হয়েছিল ২৬ ফেব্রুয়ারি এবং শেষ হয় ১৩ মার্চ। ৭,৭৭,২৬৬ জন পরীক্ষার্থী এবছর পরীক্ষায় বসেছিলেন। যাদের মধ্যে সফল হয়েছেন ৬,৬০,৩২৯ জন পরীক্ষার্থী। শতাংশের হিসেবে যা ৮৬.২৯ শতাংশ। পুরুষ পরীক্ষার্থীর তুলনায় মহিলা পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেশি ছিল বলে জানান সভাপতি। পরীক্ষা হয়েছে সর্বমোট ৫১ টি বিষয়ে।

সংসদ সভাপতি আরও জানান, আজ থেকে ৩০ দিন পর্যন্ত নম্বর পুনর্মূল্যায়নের সুযোগ থাকবে ছাত্রছাত্রীদের জন্য।