ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: ফের মুর্শিদাবাদ থেকে উদ্ধার অবৈধ টাকা৷ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় তিন ব্যক্তিকে৷ ভোটের আগে আগ্নেয়াস্ত্র, বেআইনি মদ ও টাকা উদ্ধারের ঘটনায় কার্যত দুশ্চিন্তায় পড়েছে প্রশাসন৷

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার খড়গ্রামে নাকা চেকিং চলছিল৷ সেই সময় একটি গাড়ি থেকে ৫ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা উদ্ধার করে পুলিশ৷ পরে সেগুলিকে বাজেয়াপ্ত করা হয়। ঘটনায় চালক ও খালাসি সহ গাড়িটিকে আটক করা হয়। সোমবারও একইভাবে চেকিং-এর সময় কান্দি থানার জীবন্তি এলাকায় একটি গাড়ি আটক করা হয়েছিল৷ গাড়িতে থাকা এক যুবকের কাছ থেকে মোট ৭লক্ষ ২৫ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করে কান্দি ব্লকের ফ্লাইং স্কোয়ার্ডের দল৷ পাশাপাশি ওই যুবককেও গ্রেফতার করেছিল তাঁরা৷

কান্দি মহকুমা শাসক অভীক কুমার দাস জানান, সোমবারের পর মঙ্গলবার ফের খড়গ্রামে চেকিং-এর সময় একটি পিকআপ ভ্যান থেকে ৫ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ এতো বিপুল পরিমাণ টাকার কোনো হিসাব বা বৈধ নথি দেখাতে পারেনি গাড়িতে থাকা দুই ব্যক্তি৷ গাড়ির চালক ও খালাসিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে ওই গাড়ির চালক চন্দন প্রধান কাকদ্বীপের বাসিন্দা ও খালাসি সুজয় ভৌমিক কুলপির বাসিন্দা।

এদিন তারা কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জ থেকে কাকদ্বীপের দিকে যাচ্ছিল। সোমবার যার কাছ থেকে টাকা পাওয়া যায় সেই যুবক ও কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জের বাসিন্দা৷ আবার মঙ্গলবারও সেই কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জ এলাকা থেকে গাড়িটি আসছিল৷ ফলে এই দুটি ঘটনার পুর্নাঙ্গ তদন্ত করবে পুলিশ। পরপর দুদিন যে টাকা উদ্ধার হয় তার সঙ্গে অদ্ভুত মিল রয়েছে।

যদিও গাড়ির চালক জানান আমরা পান নিয়ে তুফানগঞ্জ গিয়েছিলাম৷ ওখানে পান দিয়ে লেবারদের টাকা নিয়ে আসছিলাম৷ আমাদের টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এই টাকার উৎস কি, লোকসভা নির্বাচনে এই টাকার ব্যবহার করা হত কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।