লখনউ: সাতসকালে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা৷ রক্ষীবিহীন লেবেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে স্কুল বাসকে ধাক্কা প্যাসেঞ্জার ট্রেনের৷ তাতে ১৩ জন পড়ুয়ার মৃত্যু হয়েছে৷ আহত আরও অনেকে৷ তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের খুশিনগর জেলায়৷

পুলিশ জানিয়েছে, বাসটিতে ডিভাইন স্কুলের পড়ুয়ারা ছিল৷ প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, বাসটিতে ২৫ জন পড়ুয়া ছিল৷ অধিকাংশের বয়স ১০ এর নিচে৷ ট্রেনের ধাক্কায় স্কুল বাসটি দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে৷ বাসের ভেতর থেকে পড়ুয়াদের বের করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয়েছে উদ্ধারকারীদের৷ ঘটনাস্থলেই ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে৷

জানা গিয়েছে, এদিন সকাল সাতটা নাগাদ বেহপুরবাতে থানে-কাপাটনগঞ্জ প্যাসেঞ্জার ট্রেন ওই রক্ষীবিহীন লেবেল ক্রস করছিল৷ সেই সময় বাসে করে স্কুলে যাচ্ছিল পড়ুয়ারা৷ তখনই ঘটে দুর্ঘটনাটি৷ খবর পেয়ে ছুটে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ তাঁরাই উদ্ধার কাজে হাত লাগান৷ এরপর হাজির হয় স্থানীয় পুলিশ ও উদ্ধারবাহিনী৷ আহত পড়ুয়াদের উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়৷

এই ঘটনায় রেলের গাফিলতি প্রকাশ্যে এসে পড়ে৷ প্রথমত সেখানে কোনও রক্ষী ছিল না৷ দ্বিতীয়ত সেই সময় স্টেশনে রেল কর্মীরা এসে পৌঁছননি৷ কর্মী না থাকায় ট্রেনটিকে সবুজ সঙ্কেত দেখানো যায়নি৷ যদিও রেলের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, ট্রেনটিকে দাঁড় করানোর চেষ্টা করা হয়েছিল৷ কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে৷ পড়ুয়াদের সঙ্গে গাড়ির চালকেরও মৃত্যু হয়৷

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, প্রতিদিন এই লাইনে সকাল ছ’টা নাগাদ ট্রেনটি যায়৷ কিন্তু এদিন ট্রেনটি লেট ছিল৷ সকাল ছ’টার বদলে ট্রেনটি প্রায় সাতটার সময় সেখান থেকে যায়৷ এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ সেই সঙ্গে মৃতদের পরিবার পিছু দু’লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন৷ ঘটনার পরই খুশিনগর ছুটে যান মুখ্যমন্ত্রী৷