জোরহাট: পুজোর প্রসাদ খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন ১২৪ জন। যার মধ্যে ২৭ জন মহিলা এবং ২২ জন শিশু রয়েছে। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে অসমের জোরহাট জেলার মাজুলি দ্বীপে। পুলিশ জানায়, অসুস্থ সকলেই কোকোহোরকোটাগাঁওয়ের বাসিন্দা। এঁদের সকলকে গোরোমুর পিতম্বর দেবো গোস্বামী মহকুমার সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তবে ২২ জন শিশুর মধ্যে ১৮ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের জোরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। প্রসাদে বিষক্রিয়া থেকেই সকলে অসুস্থ হয়েছিল বলে মনে করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মহকুমা শাসককে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান জোরহাট জেলার ডেপুটি কমিশনার সোলাঙ্কি বিশাল।
জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার কোকোহোরকোটাগাঁওয়ের একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দেন ওই গ্রামের বহু মানুষ। এই অনুষ্ঠানের প্রসাদ হিসেবে ছোলার তরকারি, সবজি দিয়ে মুগ ডাল এবং ফল খাওয়ানো হয়। এই প্রসাদ খাওয়ার পর থেকেই গ্রামবাসীরা অসুস্থ বোধ করেন। যার মধ্যে শিশু, মহিলা-সহ ১২৪ জন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এ ব্যাপারে মাজুলি মহকুমার স্বাস্থ্য আধিকারিক তথা চিকিৎসক মৈনাক মিলি জানান, সকলে একইরকম উপসর্গ নিয়ে এদিন হাসপাতালে ভর্তি হন। প্রসাদ খাওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকে প্রত্যেকেরই পায়খানা শুরু হয় এবং পেটে ব্যাথা, বমি-বমি ভাব অনুভব করে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সঙ্গে-সঙ্গে প্রত্যেকের চিকিৎসা শুরু করা হয়। পরে জোরহাট মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসকের একটি দলকে মাজুলি হাসপাতালে পাঠানো হয়।